আজ শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১৩.১১.২০১৭

করদাতাদের রিটার্ন দাখিলের সুবিধার্থে দেশের সকল কর কার্যালয়ে রবিবার থেকে শুরু হয়েছে আয়কর মেলা।

চলবে আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত। মেলার পরিবেশে এখানে সব ধরনের করসেবা পাওয়া যাচ্ছে। প্রথম দিনেই ঢাকার কর কার্যালয়গুলোতে করদাতাদের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। বিশেষ করে রিটার্ন জমা দিয়ে কর কার্ড পাওয়ার আশায় করদাতারা কর কার্যালয়ে ভিড় করছেন।

এ বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সৈয়দ এ মু’মেন বলেন, মেলার পরিবেশে কর কার্যালয়গুলোতে সব সুবিধা দেয়া হচ্ছে। যেসব করদাতা আয়কর মেলায় রিটার্ন জমা দিতে পারেননি,তারা এখানে এলে মেলার সুবিধা পাবেন।

তিনি বলেন,কর কার্যালয়ে ২০ থেকে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্নের প্রাপ্তি রসিদ দেখিয়ে ঢাকার করদাতারা কর কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন। তবে আগামী বছর দেশের অন্যান্য করাঞ্চলেও কর কার্ড পাওয়া যাবে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য,এবারের কর মেলায় করদাতাদের ব্যাপক সমাগম হয়। এবারই প্রথমবারের মতো ঢাকা ও চট্টগ্রামের করদাতারা রিটার্ন দিলে কর কার্ড দেয়া হয়। এতে করদাতাদের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছে। আগ্রহের বিষয়টি মাথায় রেখে ঢাকার করদাতাদের জন্য কর কার্যালয়েও কর কার্ডের ব্যবস্থা করেছে এনবিআর।

৩০ নভেম্বর রিটার্ন জমার সময় শেষ হবে। এই সময়ে করদাতারা রিটার্ন দিতেই কর কার্যালয়ে ভিড় করে থাকেন।তাই প্রতিটি করাঞ্চলে করদাতাদের সহায়তার জন্য বুথ রাখা হয়েছে।এখানে ফরম পূরণে যাবতীয় সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।ইলেকট্রনিক কর শনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন), পুনর্নিবন্ধন, টিআইএনে ভুল-ত্রুটি সংশোধনসহ যেকোনো কর সেবা পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়া নারী, প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা এবং প্রবীণ করদাতাদের বিশেষ যতেœ কর সেবা দেয়া হচ্ছে। অনলাইনে রিটার্ন জমা বা ই-ফাইলিং করার সুযোগ রয়েছে।

এবারই প্রথমবারের মতো বেসরকারি চাকরিজীবীদের রিটার্ন দেয়া বাধ্যতামূলক করেছে সরকার। তাই এবার তুলনামূলক বেশি রিটার্ন জমা পড়বে বলে আশা করছে এনবিআর। বর্তমানে ৩১ লাখ টিআইএনধারী আছেন। গতবছর সব মিলিয়ে ১৫ লাখের মতো টিআইএনধারী রিটার্ন জমা দেন।