Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

Premier Bank Ltd

কাস্টমসের উত্তম রীতি সম্পর্কে স্টেকহোল্ডারদের সচেতন করতে হবে

বিডিনিউজডেস্ক.কম | তারিখঃ ১৮.০৮.২০১৫

নতুন কাস্টমস আইনে যেসব আন্তর্জাতিক উত্তম রীতি সংযোজন করা হয়েছে সে বিষয়ে

স্টেকহোল্ডারদের সচেতনতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। তিনি বলেন, ‘গত কয়েক বছরে কাস্টমসে অটোমেশন চালুর পাশাপাশি বিভিন্ন সংস্কারমুলক কার্যক্রম নেয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রভূত উন্নতিও হয়েছে। এখন আমরা কাস্টমসে যেসব আন্তর্জাতিক উত্তম রীতি অনুসরণ করছি সে বিষয়ে স্টেকহোল্ডারদের সচেতনতা বাড়াতে হবে।’ সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে ‘নতুন কাস্টমস আইন এবং এর প্রেক্ষিতে উত্তম রীতি অনুশীলন’ শীর্ষক চার দিনব্যাপী কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এবং এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) যৌথভাবে এর আয়োজন করে। নতুন কাস্টমস আইনে যেসব আন্তর্জাতিক উত্তম রীতি সংযোজিত হয়েছে, সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডার এবং কাস্টমস কর্মকর্তাদের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদ, ঢাকায় নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওটানাবী, এডিবির আবাসিক প্রতিনিধি কাজুহিকো হিগোচী ও এনবিআর সদস্য মোহাম্মদ ফরিদউদ্দিন বক্তব্য রাখেন। অর্থমন্ত্রী বলেন,বিশ্বব্যাপী কাস্টমসের প্রচলিত ব্যবস্থায় পরিবর্তন এসেছে। কাস্টমস কর্মকতাদের এসব বিষয়ে অবহিত হওয়া জরুরী। কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীরা কাস্টমসের আন্তর্জাতিক উত্তম রীতি সম্পর্কে জ্ঞান আহরণ করবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠানে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, কাস্টমস প্রশাসন আধুনিকীকরণ এবং কাস্টমস সেবা আরো সহজীকরণে নানা সংস্কার কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হলো নতুন কাস্টমস আইন প্রনয়নের উদ্যোগ। তিনি কাস্টমসে নতুন রীতি বা মডেল চালুর জন্য বন্ধুপ্রতিম দেশ ও উন্নয়ন সহযোগিদের সহায়তা কামনা করেন। রাজস্ব আহরণ ব্যবস্থায় উত্তম রীতি চালু করায় ব্যবসায়ীরা উপকৃত হচ্ছেন উল্লেখ করে মাতলুব আহমাদ বলেন, কাস্টমস ব্যবস্থাপনায় উত্তম রীতি সংযোজন হওয়ায় আমরা লাভবান হচ্ছি। তবে তিনি কেবল করপোরেট ব্যবসায়ী নয়, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরাও কিভাবে এর সুফল পায়, সেদিকে এনবিআরকে নজর দেয়ার আহবান জানান। অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান বলেন, ব্যবসায়ী-স্টেকহোল্ডারদের সমন্বয়ে দেশে অংশীদারিত্বমূলক রাজস্ব ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা হচ্ছে। স্টেকহোল্ডারদের সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সচেতন করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, ‘দ্যা কাস্টমস এ্যাক্ট, ১৯৯৬’ সংশোধনপূর্বক বাংলা ভাষায় নতুন কাস্টমস আইনের খসড়া প্রনয়ণ করা হয়েছে। গতবছর ১৫ সেপ্টেম্বর মন্ত্রী পরিষদ সভায় খসড়াটির নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। বর্তমানে আইনটি লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগে ভেটিং গ্রহণপূর্বক জাতীয় সংসদে অনুমোদনের জন্য উপস্থাপনের অপেক্ষায় আছে। কর্মশালায় বাংলাদেশ কাস্টমস এবং এনবিআরের ২৬ কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও ব্যবসায়ী সংগঠন থেকে আরো ১৪ জনসহ মোট ৪০ জন অংশ নিয়েছেন।