Tuesday 6th of December 2016

সদ্য প্রাপ্তঃ

***ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের ছয়বারের মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা মারা গেছেন বলে খবর স্থানীয় টিভির, হাসপাতালের অস্বীকার * আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার ড. তুরিন আফরোজের বাবা তসলিমউদ্দিন আহমেদ (৭২) ল্যাবএইড হাসাপাতালে লাইফ সাপোর্টে***

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

UCB Debit Credit Card

চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে আয় বাড়ছে

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ২১.০৪.২০১৬

২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে আয় হয়েছে

৮৫ কোটি ১৩ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৩ দশমিক ৮১ শতাংশ কম। তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় এই খাতে রফতানি আয় ২ দশমিক ৭১ শতাংশ বেড়েছে।

বাংলাদেশ রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে আয় হয়েছিল ১১৩ কোটি ৫ লাখ মার্কিন ডলার। এর মধ্যে জুলাই-মার্চ মেয়াদে এই খাতে আয় হয়েছিল ৮২ কোটি ৮৩ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার। চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১২১ কোটি ২৮ লাখ মার্কিন ডলার। এর মধ্যে প্রথম ৯ মাসে এই খাতে রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৮৮ কোটি ৪৭ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। এর বিপরীতে আয় হয়েছে ৮৫ কোটি ১৩ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার।

চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে কাঁচা চামড়া রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ২৯ কোটি ১৮ লাখ মার্কিন ডলার। তবে এ সময়ের মধ্যে আয় হয়েছে ২১ কোটি ১১ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৭ দশমিক ৬৩ শতাংশ কম। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের একই সময়ে চামড়া রফতানিতে আয় হয়েছিল ৩০ কোটি ৩৯ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার। অর্থাৎ গত অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসের তুলনায় চলতি অর্থবছরের এই সময়ে ৩০ দশমিক ৫২ শতাংশ কম বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়েছে এই খাতে।

২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে আয় হয়েছিল ১৭ কোটি ২ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার। চলতি অর্থবছরের একই সময়ে এই খাতের পণ্য রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৯ কোটি ১৭ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার। এই সময়ে আয় হয়েছে ২৮ কোটি ৬১ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪৯ দশমিক ২৫ শতাংশ বেশি। একইসঙ্গে গত অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসের তুলনায় চলতি বছরের একই সময়ে চামড়াজাত পণ্য রফতানি বেড়েছে ৬৮ দশমিক ১১ শতাংশ।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রথম জুলাই-মার্চ মেয়াদে চামড়ার জুতা রফতানিতে আয় হয়েছে ৩৫ কোটি ৪০ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১১ দশমিক ৭৬ শতাংশ কম। তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় শূন্য দশমিক ০৬ শতাংশ বেশি আয় হয়েছে এ খাতের পণ্য রফতানিতে। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে চামড়ার জুতা রফতানিতে আয় হয়েছিল ৩৫ কোটি ৪২ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার। চলতি অর্থবছরের একই সময়ে এ খাতে রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৪০ কোটি ১২ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে আয় হয়েছে ৮৫ কোটি ১৩ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৩ দশমিক ৮১ শতাংশ কম। তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় এই খাতে রফতানি আয় ২ দশমিক ৭১ শতাংশ বেড়েছে।

বাংলাদেশ রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে আয় হয়েছিল ১১৩ কোটি ৫ লাখ মার্কিন ডলার। এর মধ্যে জুলাই-মার্চ মেয়াদে এই খাতে আয় হয়েছিল ৮২ কোটি ৮৩ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার। চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১২১ কোটি ২৮ লাখ মার্কিন ডলার। এর মধ্যে প্রথম ৯ মাসে এই খাতে রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৮৮ কোটি ৪৭ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। এর বিপরীতে আয় হয়েছে ৮৫ কোটি ১৩ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার।

চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে কাঁচা চামড়া রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ২৯ কোটি ১৮ লাখ মার্কিন ডলার। তবে এ সময়ের মধ্যে আয় হয়েছে ২১ কোটি ১১ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৭ দশমিক ৬৩ শতাংশ কম। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের একই সময়ে চামড়া রফতানিতে আয় হয়েছিল ৩০ কোটি ৩৯ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার। অর্থাৎ গত অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসের তুলনায় চলতি অর্থবছরের এই সময়ে ৩০ দশমিক ৫২ শতাংশ কম বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়েছে এই খাতে।

২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে আয় হয়েছিল ১৭ কোটি ২ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার। চলতি অর্থবছরের একই সময়ে এই খাতের পণ্য রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৯ কোটি ১৭ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার। এই সময়ে আয় হয়েছে ২৮ কোটি ৬১ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪৯ দশমিক ২৫ শতাংশ বেশি। একইসঙ্গে গত অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসের তুলনায় চলতি বছরের একই সময়ে চামড়াজাত পণ্য রফতানি বেড়েছে ৬৮ দশমিক ১১ শতাংশ।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রথম জুলাই-মার্চ মেয়াদে চামড়ার জুতা রফতানিতে আয় হয়েছে ৩৫ কোটি ৪০ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১১ দশমিক ৭৬ শতাংশ কম। তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় শূন্য দশমিক ০৬ শতাংশ বেশি আয় হয়েছে এ খাতের পণ্য রফতানিতে। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে চামড়ার জুতা রফতানিতে আয় হয়েছিল ৩৫ কোটি ৪২ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার। চলতি অর্থবছরের একই সময়ে এ খাতে রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৪০ কোটি ১২ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার।

- See more at: https://www.dailyjanakantha.com/details/article/186460/%E0%A6%9A%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A7%9C%E0%A6%BE-%E0%A6%93-%E0%A6%9A%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A7%9C%E0%A6%BE%E0%A6%9C%E0%A6%BE%E0%A6%A4-%E0%A6%AA%E0%A6%A3%E0%A7%8D%E0%A6%AF-%E0%A6%B0%E0%A6%AB%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%86%E0%A7%9F-%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A7%9C%E0%A6%9B%E0%A7%87#sthash.YCjUT3aP.dpuf