মুদ্রণ

বঙ্গবন্ধুর সমাধিস্থলে কাদের সিদ্দিকী
বিডিনিউজডেস্ক.কম | তারিখঃ ২০.০৮.২০১৫

শোকের মাসে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে টুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধির সামনে বসে দোয়া পড়ে রাত পার করেছেন কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগের চেয়ারম্যান বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী।

টুঙ্গীপাড়া থানার ওসি মো. মাহামুদুল হক জানান, বুধবার বিকালে পাঁচটি গাড়িতে স্ত্রী, পরিবারের সদস্য ও দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে টুঙ্গীপাড়া আসেন কাদের সিদ্দিকী।সারা রাত বঙ্গবন্ধুর কবরের সামনে কাটিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে টুঙ্গীপাড়া ছাড়েন তিনি।বিকালে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ''বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর কেউই প্রতিবাদ করেনি। পঁচাত্তরের ১৫ অাগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ১৯ অাগস্ট আমিই প্রথম প্রতিবাদ করেছিলাম।''বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর সশস্ত্র প্রতিরোধে নামেন বীর উত্তম কাদের সিদ্দিকী। তবে তাতে সফল না হয়ে ভারতে পাড়ি জমান তিনি। এরপর ১৯৯০ সালের ডিসেম্বরে দেশে ফেরেন।
ফেরার পর আওয়ামী লীগে যোগ দেন কাদের সিদ্দিকী। পরে দল থেকে বহিষ্কারের পর কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগ নামে নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করেন।
তিনি বলেন, ''এটা সবার জন্য শোকের মাস বলে মনে হয়নি। কিন্তু আমার জন্য শোকের মাস। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর আমার জীবন তছনছ হয়ে গেছে। দেশের শক্তি-সাহস-স্বাধীনতা, মানুষের মর্যাদা বিনষ্ট হয়েছে।''
বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুবার্ষিকী ১৫ অাগস্ট বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্মদিন উদযাপনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ''আমি খালেদা জিয়াকে ১৫ অাগস্ট জন্মদিন পালন না করতে বলেছিলাম। বলেছিলাম ২/১ দিন আগে পরে করেন। সেদিন শুনলাম উনারা ধীরে ধীরে পেছাবেন। ধীরে ধীরে তো সময় পাবেন না, এটা অনুভূতির ব্যাপার।''