Print

রেকর্ড পরিমাণ চা উৎপাদনের আশা

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ৩০.০৪.২০১৬

অনুকূল আবহাওয়া ও আগাম বৃষ্টিপাতে সতেজ হয়ে উঠছে মৌলভীবাজারের চা-বাগানগুলো।

কচি পাতার সবুজ রঙে বদলে গেছে বাগানের দৃশ্য। চা-পাতা তুলতে ব্যস্ত সময় পার করছেন চা-শ্রমিকরা। এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে রেকর্ড পরিমাণ চায়ের উৎপাদন আশা করছেন বাগান

মালিকরা।

মৌলভীবাজারের বিভিন্ন এলাকাজুড়ে যতদূর চোখ যায় কেবল সবুজ আর সবুজ। অনুকূল আবহাওয়া ও আগাম বৃষ্টিপাতে বদলে গেছে চা-বাগানের দৃশ্য। কচি পাতায় রঙ লেগে পরিণত হয়েছে সবুজ গালিচায়। এতে কর্মব্যস্ততা বেড়েছে চা-শ্রমিকদের। বাগানে বাগানে দলবেঁধে চা-পাতা সংগ্রহ করছেন তারা। বাগান থেকে চা-পাতা সংগ্রহের পর সরাসরি নিয়ে যাওয়া হয় ফ্যাক্টরিতে। সেখানে বাছাই করে প্রক্রিয়ার মধ্যদিয়ে তৈরি হয় চা। বাগান মালিকরা বলছেন, উৎপাদন ভালো হলেও পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে বাজারে নিম্নমানের চা ঢুকে পড়ায় ক্ষতির মুখে পড়ছেন তারা। গত বছর দেশে ৬ কোটি ৭৪ লাখ কেজি চা উৎপাদন হয়। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এ বছর রেকর্ড পরিমাণ উৎপাদন আশা করছে চা বোর্ড।

মিরপুর কর অঞ্চলে রাজস্ব সংলাপ

কর অঞ্চল-৩, ঢাকার উদ্যোগে মিরপুর এলাকায় বৃহস্পতিবার ‘স্পট এ্যাসেসমেন্ট ও রাজস্ব সংলাপ’ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, এমপি উপস্থিত ছিলেন। এ এলাকায় বসবাসকারী বিপুল জনসংখ্যক করদাতার মধ্যে নিবন্ধিত করদাতার সংখ্যা প্রায় ৩০,০০০ এবং বর্তমান অর্থবছরে আদায়কৃত রাজস্বের পরিমাণ প্রায় ১৩.০০ কোটি টাকা। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক আয়োজিত বিভিন্ন উদ্বুদ্ধকরণ কর্মকা-ের ফলে বিগত এক বছরে এতদঞ্চলের করদাতার সংখ্যা প্রায় ৫,০০০ বৃদ্ধি পেয়েছে।মিরপুর এলাকায় করদাতার সংখ্যা বৃদ্ধির এ হার নিঃসন্দেহে অন্য যে কোন অঞ্চলের জন্য একটি অনুকরণীয় এলাকা হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।