Print

নতুন ভাড়া নির্ধারণে যাত্রীস্বার্থ উপেক্ষিত (ভিডিও)

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৯.০৫.২০১৬

প্রতি কিলোমিটারে মাত্র তিন পয়সা ভাড়া কমানোয় যাত্রীস্বার্থ উপেক্ষিত হয়েছে বলে মনে করছেন সাধারণ যাত্রীরা।

তাদের আশঙ্কা সামান্য পরিমাণে কমানো এই ভাড়া খুব একটা কার্যকর হবে না। তবে বাস মালিকরা বলছেন, ভাড়া কমানোর ফলে উল্টো লোকসানের মুখে পড়বেন তারা। আর বি আরটিএ বলছে, প্রচলিত নিয়ম মেনেই ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। পরিবহনে ভাড়া কম নেয়া না হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারিও তাদের।
গত ২৫ এপ্রিল ডিজেলের দাম লিটারপ্রতি ৩ টাকা কমানো হয়। এরপর বাস মালিকদের সঙ্গে বৈঠকে এই ৩ টাকার বিপরীতে প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া কমানো হয় ৩ পয়সা করে। সরকারের এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হলে একজন যাত্রীর সর্বোচ্চ ভাড়া কমবে, ঢাকা-কক্সবাজার ও ঢাকা-বান্দরবান রুটে ১৪ টাকা। ঢাকা-দিনাজপুর রুটে ১২টা। ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা সিলেটে সাড়ে ৭ টাকা। ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে সাড়ে ৩ টাকা। এবং ঢাকা-রাজশাহী রুটে ৬ টাকা।ভাড়া নির্ধারণের এ পদ্ধতিকে ত্রুটিপূর্ণ বলছে যাত্রীকল্যাণ সমিতি। আর সাধারণ যাত্রীরা বলছেন, ডিজেলের দাম আরও কমিয়ে ভাড়া নির্ধারণ করা হলে তাদের বেশি উপকার হতো।
বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ‘ভাড়া নির্ধারণ প্রক্রিয়ায় থাকেন বাস মালিক এবং শ্রমিকরা এবং সরকারি আমলারা যারা থাকেন তারা কিন্তু পরিবহন ব্যবহার করেন না। যার ফলে বরাবরই যাত্রীস্বার্থ উপেক্ষিত হয় এবং মালিকদের স্বার্থ সংরক্ষণ করা হয়।’
তবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলেন, ভাড়া কমানোর সরকারি সিদ্ধান্তে ক্ষতির মুখেই পড়বেন তারা। তিনি বলেন, ‘ঢাকা-সিলেট রুটের দূরত্ব ২৫০ কিলোমিটার। ৩ টাকা করে কমানোর ফলে আয় হচ্ছে ২২৫ টাকা। আর ৩ পয়সা কমালে যাচ্ছে ৩০০টাকা। এতে আমাদের পার টিকিটে ৭৫ টাকা করে ক্ষতি হচ্ছে।’
এদিকে, বি আরটিএ বলছে, কোন রুটে নতুন নিয়মে ভাড়া কমানো হলো কিনা তার তদারকি করবেন তারা। বি আরটিএ’র চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা যে ভাড়া নির্ধারণ করে দেবো সেটা মানতে হবে। আমরা যে ভাড়া নির্ধারণ করেছি সেটা অতীতের পদ্ধতি অনুসারেই নির্ধারণ করে দিয়েছি। ১৫ মে থেকে এ নতুন ভাড়া কার্যকরের কথা রয়েছে।

 

 

তথ্যসূত্রঃ সময়টিভি


by somoytv