Print

আইটি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী জাপান

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১২.০৫.২০১৬

বাংলাদেশের আইটি খাতে বড় ধরনের বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে জাপান। বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য দ্রুত একটি প্রতিনিধি দল ঢাকা সফরে আসবে।

বুধবার (১১ মে) টোকিওতে জাপানের অভ্যন্তরীণ ও আইসিটি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী শিমপেল মাতসুশিতার সঙ্গে তথ্য ও যোগযাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে জাপান এ আগ্রহের কথা জানায়।

বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলাপকালে বাংলাদেশের আইটি খাতে জাপানের বিনিয়োগের এ আগ্রহের কথা জানিয়ে মাতসুশিতা বলেন, এ ব্যাপারে আলোচনার জন্য দ্রুত জাপানের একটি প্রতিনিধি দল ঢাকা সফর করবে এবং আইটিতে সম্ভাব্য বিনিয়োগের খাতগুলো নিয়ে আলোচনা করবে।

পলক বলেন, জাপান বাংলাদেশের পরীক্ষিত বন্ধু এবং ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং যুদ্ধ পরবর্তী বাংলাদেশ পুনর্গঠনে জাপান আমাদের সহযোগিতা করে। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশের বিনিয়োগকারী শীর্ষ দেশগুলোর মধ্যে জাপান অন্যতম।

তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অভিযাত্রায় সরকারের গৃহীত নানা উদ্যোগ ও তার বাস্তবায়ন সম্পর্কে মাতসুশিতারকে অবহিত করেন। গাজীপুরের কালিয়াকৈরে প্রায় ৩৩২ একর জমির উপর হাইটেক পার্কসহ দেশে ১২টি হাইটেক পার্ক নির্মাণের কথা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এসব পার্কে বিনিয়োগ ট্যাক্স হলিডেসহ প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। সরকার আইটি খাতে অনুক‍ূল বিনিয়োগ পরিবেশ তৈরি করেছে।

জুনাইদ আহমেদ পলক ৬ মে থেকে টোকিও বিগ সাইটে শুরু হওয়া জাপান আইটি উইক ২০১৬’ -এ যোগ দেন। জাপানের অভ্যন্তরীণ ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী ছাড়াও সে দেশের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সঙ্গে সাক্ষা‍ৎ, আইটি খাতে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পৃথক বৈঠক ও আইটি ইনভেস্টমেন্ট সেমিনারে অংশ নেন প্রতিমন্ত্রী।
 
বাংলাদেশে কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম, এটুআই প্রোগ্রামের বিশেষজ্ঞ নাইমুজ্জামান মুক্তা ও আইটি খাতে ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ জুনাইদ আহমেদ পলকের সঙ্গে জাপান সফর করছেন।
 
টোকিও বিগ সাইটে এনজয়িং ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ট টু ক্রিয়েট ডিজিটাল বাংলাদেশ শীর্ষক সেমিনারে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনকালে পলক বাংলাদেশের দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির আকর্ষণীয় বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

সেমিনারে জাপানের শীর্ষ পর্যায়ের ৩০টি আইটি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বিসিসি’র নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম ও  অধ্যাপক ড. আসির আহমেদ বক্তব্য রাখেন।