Print

বিডিনিউজডেস্ক.কম
সম্পাদক
বাংলাদেশে বর্তমানে এমন অবস্থা বিরাজমান যেন, লাগামহীন ভয়ের রাজত্ব চলছে। সহিংসতার কারনে যত্রতত্র মরছে মানুষ পুড়ছে যানবাহন। পেট্রোল বোমায় দগ্ধ হয়ে শত শত মানুষের প্রান চলে গেছে। মানুষের ক্ষতিপুরন টাকা দিয়ে কী পুরন করা সম্ভব? এই কষ্ট শুধু আপনজনই বোঝে। দেশের সকল স্তরের মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

সোমবার রাজধানীর বিজয়নগর এলাকায় হাতবোমা নিক্ষেপ করে আতঙ্ক ছড়িয়ে, পরে নাশকতাকারীরা ৪-৫ টি প্রাইভেট কারে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে আগুন ধরিয়ে দেয়। রবিবার ধানমন্ডি, গুলশান, আরামবাগ সহ ছয়টি এলাকায় ৭-৮ টি গাড়িতে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। সাংবাদিক সহ বেশ কয়েকজনকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান মুখোশ পরা নাশকতাকারীরা ১০-১২ জন একত্রে থেকে হামলা চালায়। একের পর এক যানবাহন পোড়ান, চোরাগুপ্তা হামলায় পুলিশ বাহিনী নিরুপায় হয়ে পড়েছে। লক্ষীবাজারে পার্কিং এর সামনে ককটেল বিস্ফোরন ঘটালে পুলিশ গুলিবর্ষন করে ২ জন নাশকতাকারীকে আটক করে। এছাড়া ঢাকার শাহবাগ, মতিঝিল, পীড়বাগ, বাংলামটর, বাড্ডা, ফার্মগেট, কারওয়ানবাজার, মগবাজার সহ বিভিন্ন এলাকায় নাশকতা চালান হয়েছে। রাজধানীর বাইরে বিভিন্ন মফস্বল শহরে ও নাশকতার শিকার হচ্ছে মফস্বলবাসীরা। এই নারকীয় তান্ডবের শেষ কোথায়?

এই দেশে ১৮ কোটি লোকের বাস। বর্তমানে রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট খুবই টালমাটাল অবস্থা বিরাজ করছে। সর্বস্তরে ক্ষতির পরিমান লক্ষ করা যায়, যেমনি অর্থনৈতিক অবস্থা সংকটাপন্ন, তেমনি শিক্ষা ব্যবস্থার উপর যে চাপ পড়েছে তা খুবই দৃষ্টিকটু। শিক্ষাক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়লে জাতি নিঃস্ব হয়ে যাবে। অবরোধ হরতাল, সহিংসতাকে বাদ দিয়ে শিক্ষাখাতকে এগিয়ে নেয়া সকলেরই কাম্য হওয়া উচিত।

ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি করে, মানুষের স্বাধীনতা হরন করা, তার জীবনের অধিকার কেড়ে নেয়া গনতান্ত্রিক আন্দোলনের রুপ হতে পারে না।এর মাধ্যমে নিঃসন্দেহে মানুষের মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। আর আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের আইনী কাঠামোর মাধ্যমে আইন ভঙ্গ কারীদের শনাক্ত করা এবং গ্রেপ্তার করে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া।

অতএব দেশের মানুষের কথা ভেবে সংঘাতের রাজনীতি থেকে সাধারন মানুষকে বাঁচতে দিন।দেশের এই ভয়ার চিত্র আর যেন কাউকে না দেখতে হয়। হাসপাতাল গুলোর চার পাশের কান্নার চিত্র মনে করে সকলে এই নৃসংশতাকে প্রতিহত করুন, সকলেই এর বিরুদ্ধে রুখে দাড়ান।তাহলেই সেটা হবে গোটা জাতির জন্য মঙ্গল।