আজ শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১১.১১.২০১৭

বাংলাদেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সেরা অবস্থানে আছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়।

দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নিয়ে বাংলা ট্রিবিউন-ঢাকা ট্রিবিউনের করা র‌্যাংকিংয়ে এই তথ্য উঠে এসেছে। অন্যদিকে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে যথাক্রমে অবস্থান করছে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি এবং ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ। গবেষণাটি পরিচালনা করেছে ওআরজি কোয়েস্ট রিসার্চ লিমিটেড।

শুক্রবার এই জরিপের ফলাফল বাংলা ট্রিবিউনের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকের সংখ্যা, গবেষণা, ক্যাম্পাস, শিক্ষা কার্যক্রম, লাইব্রেরির অবস্থা, পাস করা শিক্ষার্থীদের সম্পর্কে শিক্ষক ও চাকরিদাতাদের ভাবনার ভিত্তিতে এই র‌্যাঙ্কিং হয়েছে। গবেষণাটি পরিচালনা করেছে ওআরজি কোয়েস্ট রিসার্চ লিমিটেড।

এই গবেষণার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। গতকাল তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘ধারণাগত ও বস্তুগত মূল্যায়নের ভিত্তিতে এই র‍্যাঙ্কিং করা হয়েছে। এটা শতভাগ নির্ভুল—এমনটি দাবি করব না। তবে ভুল কম হয়েছে, এটা বলা যায়।’

প্রতিবেদন অনুযায়ী, র‌্যাংকিংয়ের চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে আহসানউল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ পঞ্চম, ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ ষষ্ঠ, ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি সপ্তম এবং অষ্টম স্থানে রয়েছে দ্য ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক। এছাড়া ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি নবম এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি দশম হয়েছে।

এরপরে রয়েছে ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি (১১তম), স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (১২তম), নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (১৩ তম), ইউনিভার্সিটি অব ডেভলপমেন্ট অল্টারনেটিভ (১৪তম), স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটি (১৫তম), প্রাইমএশিয়া ইউনিভার্সিটি (১৬তম), ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগরিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি (১৭তম), আশা ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (১৮তম), সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটি (১৯তম), বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির (২০তম) নাম।

গবেষণা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ফ্যাকচুয়াল ও পারসেপচুয়াল থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্তের স্কোরের সমন্বয়ে চূড়ান্ত র‌্যাংকিং করা হয়। যার মধ্যে ফ্যাকচুয়াল থেকে ৪০ শতাংশ ও পারসেপচুয়াল থেকে ৬০ শতাংশ স্কোর নিয়ে মোট ১০০ স্কোরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর র‌্যাংকিং নির্ধারণ করা হয়েছে। ফ্যাকচুয়াল ডাটার ক্ষেত্রে নেওয়া হয়েছে ইউজিসির ২০১৪ সালের তথ্য।