আজ শনিবার, ২৭ মে, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে সরিয়ে নেওয়া হল আলোচিত ভাস্কর্যটি * মধ্যরাতে ভাস্কর্য অপসারণের কাজ চলার মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের সামনে বিক্ষোভ * ‘চাপে পড়ে’ ভাস্কর্যটি সরানোর কথা বললেন ভাস্কর মৃণাল হক; তবে কার চাপ, তা বলেননি তিনি * খুলনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদককে গুলি চালিয়ে হত্যা, গুলিতে তার সহকারীও নিহত * সরকার বিরোধী নেতা-কর্মীদের হত্যার মিশনে, বললেন খালেদা জিয়া * মাগুরায় জেলা প্রশাসককে ঘুষ দিতে গিয়ে ৫ লাখ টাকাসহ এক ব্যক্তি গ্রেপ্তার

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

র‍্যাপ শিল্পী হানি সিং-রাফতার-বাদশা নিষিদ্ধ!

বিনোদন ডেস্ক | তারিখঃ ০৮.০১.২০১৭

বেঙ্গালুরুর গণশ্লীলতাহানির পর বহু মানুষ বহু রকম মন্তব্য করেছেন।

কেউ অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছে মহিলাদের পোষাকের দিকে, কেউ বা দেশে পাশ্চাত্য সংস্কৃতির আধিপত্যের দিকে। কিন্তু দিনের পর দিন যেভাবে মহিলাদেরকে পুরুষশাসিত সমাজে লিঙ্গ-বৈষম্যের শিকার হতে হয় তা পর্দার আড়ালেই থেকে যায়।এই প্রথার বিরুদ্ধে দিল্লি ইউনিভার্সিটির মহিলা কলেজগুলি যা পদক্ষেপ নিয়েছে তা লক্ষনীয়। কলেজের ছাত্রীরা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে কলেজের অনুষ্ঠানে হানি সিং বা বাদশার মত কোনও র‍্যাপ শিল্পীকে আনা হবে না।হানি সিং এর ‘ছোটি ড্রেস মে বম্ব লাগতি তু’ বা বাদশার ‘আজা বেবি তেরা গানা বাজা দু’ বা ‘আজ রাত ক্যা সিন বানালে’ এই ধরনের গানের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন কলেজের ছাত্রীরা। তাদের মতে এই সমস্ত র‍্যাপ শিল্পীদের গানে মহিলাদের উদ্দেশ্যে কুরুচিকর মন্তব্য করা হয়ে থাকে।

এছাড়া গান গুলিতে রয়েছে যৌন সুড়সুড়ি ও লিঙ্গ-বৈষম্যের ছোঁয়া। এই র‍্যাপ শিল্পীদের চাহিদা সারা দেশ জুড়ে তুঙ্গে। অনুষ্ঠানে স্পনসর পেতেও অসুবিধা হয় না। কিন্তু সমাজে কুপ্রভাব ফেলতে এই গানগুলির ভূমিকা অনেকটা বলে মনে করেন দিল্লি ইউনিভার্সিটির কলেজের ছাত্রীরা।রাস্তায় চলতে গিয়ে এই গানের কয়েক কলি গেয়েই মহিলাদের বিরক্ত করা শুরু করে অনেক পুরুষ। এই গানগুলির কথা প্ররোচনা দেওয়ার জন্য যথেষ্ট, মনে করেন জিসাস অ্যান্ড মেরি কলেজের ছাত্র সংগঠনের সহ সম্পাদিকা রাভি জোটওয়ানি।হানি সিং, রাফতার, মিকা সিং বা বাদশার বদলে এই কলেজগুলির ছাত্রীরা কোনও মহিলা সঙ্গীতশিল্পীকে কলেজের অনুষ্ঠানে আনতে চান।