আজ শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

বিনোদন ডেস্ক | তারিখঃ ০৬.০৯.২০১৭

বাংলা চলচ্চিত্রের এক উজ্জল নক্ষত্রের নাম সালমান শাহ। যিনি ছিলেন নব্বই দশকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ নায়ক।

তার প্রকৃত নাম চৌধুরী সালমান শাহরিয়ার ইমন, কিন্তু চলচ্চিত্র জীবনে এসে হয়ে যান ‘সালমান শাহ’। আজ ৬ জুলাই ক্ষণজন্মা এই জনপ্রিয় নায়কের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকী।

 

প্রয়াত জনপ্রিয় এই চিত্রনায়কের মা ও সালমান শাহ ঐক্যজোটের প্রধান উপদেষ্টা নীলা চৌধুরী জানান, মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় গণজমায়েত হবে। বিকাল ৩টায় সিলেটের কোর্ট পয়েন্ট এলাকায় মানববন্ধন হবে। এর পর হবে বিক্ষোভ মিছিল। বিক্ষোভ মিছিল শহর প্রদক্ষিণ শেষে সালমান শাহ ভবনে সমবেত হবে। এর পর মিলাদ ও দোয়া মাহফিল হবে। এমনিভাবে বিক্ষোভ মিছিল এবং মিলাদ ও দোয়া মাহফিল হবে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায়।

 

সালমান শাহ অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র কেয়ামত থেকে কেয়ামত। সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে এসিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে পদার্পণ করেন তিনি। প্রথম ছবিতেই দর্শকের মনে জায়গা করে নেন তিনি। তারপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। একের পর এক ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র উপহার দিয়ে গেছেন।

 

কেয়ামত থেকে কেয়ামত ছবির মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিনয়জীবন শুরু এবং বুকের ভেতর আগুন চলচ্চিত্রের মাধ্যমে সমাপ্তি। এই অভিনেতা সর্বমোট ২৭টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। নায়িকা শাবনূরের সঙ্গে সবচেয়ে বেশি ১৪টি ছবিতে জুটি বেঁধেছেন। এছাড়াও টেলিভিশনে তার অভিনীত কয়েকটি নাটক প্রচারিত হয়।

 

তবে এতকিছুর মাঝেও ইতিহাসের সেরা নায়ক সালমান শাহের মৃত্যুর কারণ আজও সবার অজানা। ময়না তদন্ত রিপোর্টে আত্মহত্যা বলে উল্লেখ করা হলেও তার মৃত্যু নিয়ে রহস্য এখনো কাটেনি। ২১ বছর পেরিয়ে গেলেও এই মৃত্যুর রহস্য ধোয়াশাই হয়ে রইলো। অনেকেই সালমান শাহ-এর মৃত্যুর জন্য তার স্ত্রী সামরার দিকে অভিযোগের আঙুল তুললেও, পরে এর কোনো অগ্রগতি হয়নি।

 

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালের এই দিনে সালমানের নিজ বাস ভবনে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়। হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের ডাক্তাররা তার মৃত্যু নিশ্চিত করেন। এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজের ময়নাতদন্তে বের হয়ে আসে সালমান শাহ আত্মহত্যা করেছেন।

 

সম্পূর্ণ আকস্মিক এই ঘটনায় হতবিহ্বল হয়ে পড়ে তার পরিবার এবং পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় সালমানকে হত্যা করা হয়েছে। সারা দেশ জুড়ে সালমানের অসংখ্য ভক্ত তার মৃত্যু মেনে নিতে না পারায় বেশ কয়েকজন তরুণীর আত্মহত্যার খবরও আসে পত্রিকায়।

 

পরিবারের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে দ্বিতীয়বারের মত ময়নাতদন্ত করা হয়। মৃত্যুর আটদিন পর সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে তিন সদস্য বিশিষ্ট মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। সেই বোর্ডের প্রধান ছিলেন ডাক্তার নারগিস বাহার চৌধুরী, যিনি বলেছেন আত্মহত্যার স্পষ্ট প্রমাণ তারা পেয়েছিলেন।

 

এদিকে দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে আবার আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করা হলে মামলার কাজ সেখানেই থেমে যায়। তবে সালমান শাহকে নিয়ে আলোচনা থামে না। মাত্র চার বছরে ২৭ টি সিনেমায় অভিনয় করে সালমান শাহ বাংলা সিনেমায় নিজের যে স্থানটি করে নিয়েছিলেন তার অভাব এখনো অনুভব করেন দর্শক, পরিচালক, প্রযোজক সবাই।