Print
জাপানের নাগরিক হত্যার ঘটনায় আটক ৫
জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ ০৩.১০.২০১৫
 
রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার কাসু গ্রামে জাপানের নাগরিক হোসি কনিও হত্যার ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।
শনিবার নগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের আটক করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে। আটক ব্যক্তিরা হলেন- হোসি কনিও যে বাসায় থাকতেন, সেই বাসার মালিক গোলাম জাকারিয়া, তার ছেলে জাপানি নাগরিকের প্রকল্প সহকারী হুমায়ুন কবীর হীরা, রিকশাচালক মোন্নাফ ও মুরাদ। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।
শনিবার সকাল ১০টার দিকে মুখোশধারী দুর্বৃত্তরা হোসি কনি’কে গুলি করে। এর মধ্যে তিনটি গুলি লাগে তার শরীরে।
পুলিশ জানিয়েছে, এক বছরের ভিসা নিয়ে হোসি কনিও রংপুরে এসেছিলেন। ছয় মাস ধরে তিনি রংপুরের মাহিগঞ্জের আলুতারী এলাকায় একটি কৃষি প্রকল্প পরিচালনা করছিলেন। সকালে নগরীর মুন্সীপাড়ার ৩১ নম্বর ভাড়া বাসা থেকে রিকশাযোগে মাহিগঞ্জ যাওয়ার সময় আলুতারীতে কয়েকজন দুর্বৃত্ত তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। তিনটি গুলি তার হাত, বুক ও পায়ে লাগে।
পুলিশ আরো জানায়, দৃর্বৃত্তরা মৃত্যু নিশ্চিত করতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হোসি কনিওর হাতের রগ কেটে দেয় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) জয়নাল আবেদীন বলেন, নিহত ব্যক্তির সঙ্গে থাকা পাসপোর্ট দেখে নিশ্চিত হওয়া গেছে তিনি জাপানি নাগরিক। তবে তার অবস্থান সম্পর্কে পুলিশকে আগে থেকে কিছু জানানো হয়নি।
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক (ইএমও) সরওয়ার হোসেন জানান, হাসপাতালে আসার আগেই হোসি কনিওর মৃত্যু হয়েছে। তার বুকে ও শরীরে গুলি লেগেছে।
এদিকে জাপানি নাগরিক নিহত হওয়ার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশের রংপুর রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) হুমায়ুন কবীর, জেলা প্রশাসক (ডিসি) রাহাত আনোয়ার, পুলিশ সুপার (এসপি) আবদুর রাজ্জাকসহ প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা।