মুদ্রণ

রাকিব হত্যার বিচার শুরু
জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ ০৫.১০.২০১৫

খুলনায় আলোচিত শিশু রাকিব হত্যা মামলায় তিন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেছেন আদালত।

১১ অক্টোবর থেকে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর দিন ধার্য করা হয়েছে।চার্জ গঠনের মধ্য দিয়ে পৈশাচিক ওই হত্যাকাণ্ডের বিচার শুরু হলো। সোমবার (৫ অক্টোবর) দুপুর দেড়টায় মহানগর দায়রা জজ আদালত এ অভিযোগ গঠন করেন। এ সময় তিন আসামি শরীফ, তার চাচা মিন্টু খান ও মা বিউটি বেগমকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। তাদেরকে আদালত দোষী না নির্দোষী বলে প্রশ্ন করলে আসামিরা নিজেদেরকে নির্দোষ বলে দাবি করেন।আগামী ১১ অক্টোবর থেকে টানা ৫ দিন এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ চলবে বলে জানিয়েছেন আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) সুলতানা রহমান শিল্পী ।মামলার চার্জ গঠন হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন নিহত রাকিবের বাবা নুরুল আলম।গত ৩ আগস্ট বিকেলে খুলনার শরীফ মটরসে মোটরসাইকেলে হাওয়া দেওয়ার কম্প্রেসার মেশিন দিয়ে শিশু রাকিবের মলদ্বারে হাওয়া ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। অতিরিক্ত বায়ূর চাপে রাকিব গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে রাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।শিশু রাকিবকে নির্যাতনে হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শরীফ ও মিন্টু মিয়াকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে ক্ষুব্ধ জনতা। পরে শরীফের মা বিউটি বেগমকেও গ্রেফতার করে পুলিশ।এ ঘটনায় পরদিন নিহত শিশুর বাবা মোঃ নুরুল আলম বাদী হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন ।২৫ আগস্ট এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই কাজী মোস্তাক আহমেদ এজাহারভুক্ত তিন আসামি মোটরসাইকেল গ্যারেজ মালিক ওমর শরীফ, তার কথিত চাচা মিন্টু খান ও শরীফের মা বিউটি বেগমের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। ৬ সেপ্টেম্বর মহানগর আদালত বিচারকার্য শুরুর জন্য মামলাটি মহানগর দায়রা জজ আদালতে প্রেরণ করেন।
পৈশাচিকভাবে শিশু রাকিবকে হত্যার পর খুলনাসহ সারা দেশে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাসহ সব শ্রেণি-পেশার মানুষ ও শিশুরা প্রতিবাদ জানাতে মানববন্ধন, প্রতিবাদ মিছিল, সংবাদ সম্মেলনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেন।