Print

এক যুগে বিদেশে প্রাণ গেল ২৭ হাজার শ্রমিকের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.০৫.২০১৬

বিদেশে কাজ করতে গিয়ে গত এক যুগে মারা গেছে ২৭ হাজারেরও বেশি শ্রমিক। কর্মস্থলে অতিরিক্ত পরিশ্রম, অসুস্থতা ও  দুর্ঘটনাই অধিকাংশ ক্ষেত্রে এসব মৃত্যুর কারণ।

বাংলাদেশ অক্যুপেশনাল সেইফটি, হেলথ অ্যান্ড অ্যানভায়রনমেন্ট ফাউন্ডেশনের (ওশি) এক পরিসংখ্যানে তথ্য জানানো হয়েছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত এক যুগে (১২ বছর) ২৭ হাজার ২৬৫ জন প্রবাসী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে স্ট্রোক ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে এবং পেশাগত দুর্ঘটনায় সবেচেয়ে বেশি প্রবাসী শ্রমিক মারা গেছেন। 

শনিবার (১৪ মে) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির গোলটেবিল মিলনায়তনে “অভিবাসী বাংলাদেশি শ্রমিকদের পেশাগত নিরাপত্তা’’ বিষয়ক সংলাপে এমন তথ্য দেন ওশি’র নির্বাহী পরিচালক এ আর চৌধুরী রিপন।

এক গবেষণাপত্রের আলোকে রিপন বলেছেন, ‘অভিবাসন সংক্রান্ত আইন ও নীতিমালায় শ্রমিকের পেশাগত সুরক্ষার বিষয় উল্লেখ থাকলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অভিবাসী শ্রমিকরা এসব বিধিবিধানের সুযোগ পায় না। ফলে অনিরাপদ পরিবেশে কাজ করার কারণে পেশাগত রোগ ও কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে।’
 
অভিবাসী বাংলাদেশি শ্রমিকদের পেশাগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার, শ্রমিক গ্রহণকারী রাষ্ট্র, রিক্রুটিং এজেন্সিসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা গ্রহণের সুপারিশ করেন তিনি।

সংলাপে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং ও অ্যানফোর্সমেন্ট বিভাগের প্রধান ও যুগ্মসচিব মো. আকরাম হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সৈয়দা রোযানা রশীদ, শ্রম অভিবাসন বিশ্লেষক হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ডান চার্চ এইড এর কান্ট্রি ডাইরেক্টর হাসিনা হক প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, কর্মরত অবস্থায় নানামুখি সমস্যা, প্রতিকূল পরিবেশ আর হয়রানি-নির্যাতন-সহিংসতার শিকার হয়ে প্রতিনিয়তই প্রবাসে বাংলাদেশি শ্রমিকদের মৃত্যু হচ্ছে। তবু জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শ্রমিকরা শ্রমের বিনিময়ে কোটি কোটি টাকা রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছে। কিন্তু কাজ করতে গিয়ে কিংবা কর্মক্ষেত্রের বিভিন্ন প্রতিকূল পরিস্থিতিতে জীবন দিতে হচ্ছে শ্রমিকদের। কর্মস্থলে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা না থাকায় শ্রমিকস্বার্থ ক্ষুণ্ন হওয়ার পাশাপাশি তাদের জীবনে নেমে আসছে ভয়াবহ অনিশ্চয়তা। এ ব্যাপারে বিদেশি রাষ্ট্রের পাশাপাশি নিজ দেশের সরকারেরও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণে অনীহা দিন দিন প্রবাসী শ্রমিকদের মৃত্যুঝুঁকির দিকে ঠেলে দিচ্ছে।