Print

অধিনায়কের নির্দেশেই ম্যাচ পাতানোতে অংশ নিই
স্পোর্টস ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.১০.২০১৫

২০০৮ সালের ভারতীয় ক্রিকেট লিগে ম্যাচ পাতানো মামলায় সাবেক নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটার লু ভিনসেন্টের জবানবন্দিতে এবার সরাসরি নাম উঠে এল অধিনায়ক ক্রিস কেয়ার্নসের নাম।

তিনি বলেন,ভারতীয় ক্রিকেট লীগ ২০০৮ এ চণ্ডীগড় লায়ন্সের হয়ে অধিনায়ক কেয়ার্নসের সরাসরি নির্দেশে আমি ম্যাচ পাতানোতে অংশ নেই।সোমবার লন্ডনের একটি আদালতে তিনি এই কথা বলেন।৩৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার আরও বলেন, ম্যাচ পাতানোর জন্য আমাকে অধিনায়ক কেয়ার্নস প্রতি খেলার জন্য ৫০ হাজার ডলার দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।৪৫ বছর বয়সী কেয়ার্নস ২০১০ সালে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের জনক ললিত মোদীর বিরুদ্ধে আনা ১.৪ মিলিয়ন ডলারের দুর্নীতি মামলার প্রধান সাক্ষী। কিন্তু ভিনসেন্ট দাবী করেন সে মামলায় কেয়ার্নস মিথ্যে কথা বলে ললিত মোদীকে বাঁচিয়েছেন।ভিনসেন্ট আরও বলেন, আমি ভারতে আসার পর আমাকে একজন ভারতীয় ম্যাচ পাতানোর জন্য বিপুল পরিমাণের অর্থ এবং পতিতা নারী প্রস্তাব দিয়েছিল কিন্তু আমি এই ব্যপারে সরাসরি কেয়ার্নসের সাথে কথা বলি কিন্তু সে আমাকে বলে এখন থেকে তার হয়ে কাজ করতে।
ভিনসেন্ট দাবী করেন যে সে সময় তিনি মানসিক চাপের উপর পড়ে কেয়ার্নসের কথায় রাজি হন। তিনি জানান সাবেক নিউজিল্যান্ড অলরাউন্ডার ড্যারিল টাফি ও ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান দিনেশ মঙ্গিয়া তার সাথে অন্তর্ভুক্ত ছিল।তিনি আরও বলেন, ম্যাচ পাতানো থেকে সরে আসতে চাইলেও আমাকে অনেক হুমকির মুখে পড়তে হয়। এমনকি ২০১২ সালে চন্ডিগড়কে ছাড়ার পরেও এই ম্যাচ পাতানোর সাথে জড়িত করে রাখে আমাকে।প্রসঙ্গত, কেয়ার্নস নিউজিল্যান্ডের হয়ে ৬২ টেস্ট খেলেছেন। নিউজিল্যান্ডের হয়ে ২০০ উইকেট এবং একই সাথে ৩০০০ রান করা হিটিং ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অন্যতম তিনি।