Print
বিভাগঃ জাতীয়

ঢাকা ত্যাগ করলেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত

জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ ১৩.০৫.২০১৬

ঢাকা থেকে রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহারের ঘোষণা দিতে না দিতেই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ ত্যাগ করেছেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ডেভরিম ওযটুক। 

এর আগে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, দেশটির রাষ্ট্রপতি রিসেফ তাইয়েপ এরদোয়ান বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ থেকে তাদের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন। তার ঘোষণার পরপরই নানা গুঞ্জন শুরু হতে না হতেই ঢাকা ছাড়লেন দেশটির রাষ্ট্রদূত। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় আংকারার উদ্দেশে রওয়ানা দেন তিনি।যদিও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, তারা রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহারের বিষয়টি জানেন না। তবে  ১১ মে  তুর্কি দূতাবাস এক চিঠিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অবহিত করেছে, ১২ মে  রাষ্ট্রদূত ছুটিতে যাচ্ছেন। আর নিয়মানুযায়ী কোনো দেশের রাষ্ট্রদূত ছুটিতে বা অন্য কোনো কারণে দেশ ত্যাগ করলে সংশ্লিষ্ট দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে তা অবহিত করতে হয়।বিষয়টি নিশ্চিত করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, ‘স্বাভাবিক ছুটিতে’ তিনি দেশে যাচ্ছেন বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছেন।যদিও একটি তুর্কি নিউজ ওয়েবসাইট হুরিয়াত ডেইলি নিউজ জানিয়েছে, রাষ্ট্রদূত ডেভরিম ওযটুককে শলাপরামর্শ করার জন্য আংকারায় ডেকে পাঠানো হয়েছে। উল্লেখ্য, জামায়াতের বন্ধুরাষ্ট্রগুলোর মধ্যে তুরস্ক একটি। দেশটির ক্ষমতাসীন একে পার্টি জামায়াতের মত ‘ইসলামিক রাজনৈতিক’ দল। যদিও তারা ধর্মনিরপেক্ষতাকে সমর্থন দেয়ার কৌশলকে কাজে লাগিয়ে রাজনীতির সুযোগ বাগিয়ে ক্ষমতায় যায়। দলটি এখন বেশ জনপ্রিয়!এর আগে জামায়াতের সাবেক আমির গোলাম আযমকে ফাঁসি না দেয়ার আহ্বান জানিয়ে চিঠি লিখেছিলেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট আহমেদ গুল। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের মান নিয়ে প্রশ্ন তোলা দেশগুলোর মধ্যে তুরস্ক অন্যতম।