Wednesday 26th of April 2017

সদ্য প্রাপ্তঃ

৯ জুলাই বাংলাদেশে আসছে পাকিস্তান * মুক্তিযোদ্ধারা পাচ্ছেন ৫ বছরের মাল্টিপল এন্ট্রি ভিসা * আত্মহত্যা করলেন সাবেক রঞ্জি ক্রিকেটার * পরিবর্তন আসছে কলেজে ভর্তি প্রক্রিয়ায় * ৪ মে এসএসসির ফল প্রকাশ * মোহাম্মদপুরে গলিত লাশ উদ্ধার * এবার ফেসবুক লাইভে বাবার হাতে মেয়ে খুন * উপকূলে মার্কিন সাবমেরিন, লাইভ ফায়ার চালাচ্ছে উ.কোরিয়া * ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ ফাইলেরিয়া মুক্ত রাষ্ট্র হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

জুনে মেট্রোরেলের আনুষ্ঠানিক কাজ উদ্বোধন

জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.০৫.২০১৬

চলতি বছরের জুনে মেট্রোরেলের কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার রাজধানীর উত্তরার ডিয়াবাড়ি এলাকায় মেট্রোরেল ডিপোর কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ তথ্য জানান।
ওবায়দুল কাদের জানান, ২০১৯ সালে প্রথম ধাপে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেলের কাজ হয়ে শেষ হবে। এরপরের কয়েক মাসের মধ্যে শুরু হবে শাপলা চত্বর পর্যন্ত মেট্রোরেলের কাজ।
 
মন্ত্রী আরও বলেন, মেট্রোরেলের ‘ফিজিক্যাল’ কাজ শুরু হয়ে গেছে। প্রকল্পটি সরকারের ফার্স্টট্র্যাক প্রকল্প হওয়ায় আমরা একটি ভালো ওপেনিং করতে চাই। পুরো প্রকল্পের সামারি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে। আগামী জুন মাসের একটা সময়ে তিনি মেট্রোরেল নির্মাণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।
মন্ত্রী বলেন, ২০২৪ সালে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ২০১৯ সালের মধ্যে এ কাজ শেষ করা হবে। আমরা পাঁচ বছর সময় কমিয়ে এনেছি। মেট্রোরেল যেসব দেশে আছে সেখানেও এভাবে কাজ কমিয়ে আনার রেকর্ড নেই।

তিনি বলেন, উত্তরা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শাপলা চত্বর পর্যন্ত মেট্রোরেলের রুটে ১৬টি স্টেশন থাকবে। 

বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার ভেতর দিয়ে গেলেও ছাত্রদের পড়াশোনায় ব্যাঘাত হবে না দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, একটা ট্রাকের শব্দও হবে না। ছাত্রদের পড়াশোনায় কোনও ব্যাঘাত ঘটবে না। আর পরিবেশগত সমস্যা এড়াতে অত্যাধুনিক পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে।

ভাড়া নির্ধারণের বিষয়ে তিনি বলেন, গণপরিবহনে তো স্বভাবতই ভাড়া কম হয়। জনগণের সামর্থ্য বিবেচনা করেই ভাড়া নির্ধারণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, রাজধানীর যানজট নিরসনে ইতিপূর্বে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। ২০ কিলোমিটার দীর্ঘ মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে সড়ক পরিবহন ও সেতু বিভাগ। এতে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২২ হাজার কোটি টাকা, যার মধ্যে ১৬ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা দেবে জাপান আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থা (জাইকা)। বাকি ৫ হাজার ৩৯০ কোটি টাকা সরকারের তহবিল থেকে সরবরাহ করা হবে।