Sunday 4th of December 2016

সদ্য প্রাপ্তঃ

***বিমানবাহিনীর ঘাঁটি ‘বঙ্গবন্ধু’কে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা***

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

UCB Debit Credit Card

১ রেকারে ৭ গাড়ি

জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.০৫.২০১৬

রাজধানীর মিরপুর ১৪ নম্বরে ব্যাপক অভিযান চালিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ পশ্চিম জোন।

অভিযানে মিরপুর ১৪ নম্বর থেকে কাকলী রুটে চলাচলকারী ৯টি মিনিবাস, ৭টি সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ১৪টি মোটরসাইকেল ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার (১৪ মে) বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ অভিযান চলে। ঢাকা মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশ পশ্চিম জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মশিউর রহমানের নেতৃত্বে অভিযানে ছিলেন সহকারী কমিশনার (এসি) ফাতেমা ইসলাম, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ। অভিযানে সহায়তা করে ভাষানটেক ও কাফরুল থানা পুলিশ।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, মিরপুর ১৪ নম্বর থেকে কাকলী পর্যন্ত সেনানিবাসের ভেতর দিয়ে ৫৯টি মিনিবাস চলে। অথচ এই রুটে চলাচলের অনুমতি আছে মাত্র ১৭টি গাড়ির। সে কারণে অভিযান চালিয়ে রুটে চলাচলের বৈধ কাগজপত্র না থাকায় ৯টি বাস আটক করে ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে। অবশ্য, অভিযানের খবর পেয়ে সকাল ১০টার পর থেকেই অনেক গাড়ি বন্ধ করে দিয়েছেন মালিকরা।

তারা আরও জানান, অভিযানে যে ৭টি সিএনজি আটক করা হয়েছে। সেগুলো প্রাইভেট, অথচ চলছিল ভাড়ায়। সে কারণে ৭টি সিএনজিকেই এক রেকারে বেধে ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া, কাগজপত্র না থাকা, হেলমেট না থাকা, আইন ভেঙে তিনজন বহন, পুলিশ-সাংবাদিক স্টিকার লাগানোসহ নানা কারণে ১৪টি মোটরসাইকেল আটক করা হয়েছে। এগুলোর কিছুকে তৎক্ষণাৎ জরিমানাও করা হয়েছে। এই মোটর সাইকেলগুলোর মধ্যে পুলিশের স্টিকার লাগানো দু’টি এবং নৌবাহিনীর স্টিকার লাগানো একটিও রয়েছে।

এ বিষয়ে এডিসি মশিউর রহমান বলেন, অনুমতি থাকলে এ রুটে আরও ১৭টি গাড়ি চলতে দিতেও রাজি, জনগণের সুবিধার জন্য। কেউ বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারলে আমাদের কোনো সমস্যা নেই।

তিনি জানান, অভিযানের আগে এ রুটের বাসওয়ালাদের সতর্ক করা হয়েছে, যেন তারা বৈধ কাগজপত্র নিয়ে চলাচল করেন, অযথা যেন যানজটের সৃষ্টি না করেন। অন্যথায় ট্রাফিক পুলিশ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য থাকবে।

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট রুটের পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি ক্যাপ্টেন (অব.) মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, আমরা অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। আমাদের সংসার আছে। সে কারণে এই রুটে স্টেশন কমান্ডারের অনুমতি নিয়ে গাড়ি চালাচ্ছি। আমাদের গাড়ির বৈধ কাগজপত্র আছে। কেবল আরপি (রুট পারমিট) নেই। সে কারণে পুলিশ এ রুটে আমাদের গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দিচ্ছে।