Print
বিভাগঃ জাতীয়

দু’বছরের মধ্যে গ্যাস সংযোগের বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হবে

জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.০৫.২০১৬

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আজ বলেছেন, আগামি দুই বছরের মধ্যে প্রাকৃতিক গ্যাসের সংযোগ প্রদান সংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করা হবে এবং সুষ্ঠুভাবে গ্যাস

সরবরাহ নিশ্চিত করার ব্যাপারে সরকার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিয়েছে। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) মিলনায়তনে আজ এক সেমিনারে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার দেশের ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে বিদ্যমান গ্যাস পাইপ লাইনের মাধ্যমে পেট্রোলিয়াম গ্যাস সরবরাহ করবে।’ বুয়েট এ্যালামনাই এসোসিয়েশন আয়োজিত ‘জ্বালানী, পরিবেশ ও টেকসই উন্নয়ন: বাংলাদেশের জন্য কৌশলগত বিকল্প’ শীর্ষক এই সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বুয়েট-এর উপাচার্য অধ্যাপক খালেদা একরাম। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বুয়েট এ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাদিকুল ইসলাম ভুঁইয়া।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ম. তামিম, ড. রেজোয়ান খান এবং ড. আহমাদ কায়কাউস। বক্তব্য রাখেন- পাওয়ার সেল-এর মহাপরিচালক ড. এম এ মতিন ও অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ প্রমুখ। বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আসন্ন বাজেট হবে প্রায় ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার এবং সরকার জ্বালানী খাতের জন্য ২০২৪ সাল পর্যন্ত একটি পরিকল্পনা প্রনয়ন করেছে।

তিনি বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য গ্যাসের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করা এবং নিকট ভবিষ্যতে গ্যাস সরবরাহের উপর আর কোন বিধিনিষেধ থাকবে না। যারা গ্যাস পাচ্ছে না তাদের কথা আমরা বিবেচনা করছি এবং বিদ্যমান পাইপলাইনের মাধ্যমে পেট্রোলিয়াম গ্যাস সরবরাহ করা হবে।’ তিনি নবায়নযোগ্য জ্বালানী, বিশেষত বায়ু ও সৌর বিদ্যুতের ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, ২০২৪ সাল নাগাদ ২ হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যে সরকার দেশে পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প হাতে নিয়েছে।