Print

জেলহাজতে পাঠানো হলো কামরুলকে

বিডিনিউজডেস্ক.কম | তারিখঃ ১৭.১০.২০১৫

সিলেটে শিশু শেখ সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার প্রধান আসামি কামরুল ইসলামকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালত-২-এর বিচারক আনোয়ারুল হক এ আদেশ দেন। 

সিলেটের জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেন বিষয়টি জানিয়েছেন। তিনি জানান, সকাল ১০টা ৫০ মিনিটের দিকে কামরুলকে আদালতে হাজির করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার বিষয়টি আমলে নিয়ে আদালত জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কামরুলকে আদালত থেকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

কামরুলের বিরুদ্ধে দেওয়া রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত থাকা রাজনের বাবা শেখ আজিজুল আলম। এ সময় তিনি কামরুলকে কারা পালাতে সহযোগিতা করেছিল, সেটি খুঁজে বের করতে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানান।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ঢাকা থেকে সিলেট নিয়ে যাওয়া হয় কামরুলকে। এর আগে বিকেল ৩টার দিকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সৌদি আরব থেকে কামরুলকে নিয়ে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায় পুলিশের তিন সদস্যের একটি দল। পরে সন্ধ্যার দিকে তাঁকে নিয়ে সিলেটের পথে রওনা দেয় পুলিশ।

গত ৮ জুলাই সিলেটের কুমারগাঁওয়ে শিশু রাজনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ সময় নির্যাতনকারীরা ভিডিওচিত্র ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। এতে দেশ-বিদেশে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। রাজন হত্যা মামলার প্রধান আসামি কামরুলকে সৌদি আরব থেকে ফিরিয়ে আনতে বিভিন্ন মহল থেকে জোর দাবি ওঠে। বিষয়টি নিয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকেও তৎপরতা বাড়ানো হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত সোমবার পুলিশ কর্মকর্তারা কামরুলকে দেশে ফেরাতে সৌদি আরব যান। পরে গতকাল বিকেলে ইন্টারপোলের মাধ্যমে তাঁকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়।