Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Premier Bank Ltd


বিডিনিউজডেস্ক.কম   

তারিখঃ ১৩.০৬.২০১৫

সকালে পাড়ার দোকান থেকে দৈনন্দিন ডিম-পাঁউরুটি কিনতে গিয়ে যদি থলেভর্তি টাকা নিয়ে যেতে হয়, তাহলে চমকে ওঠাই স্বাভাবিক। মজা নয়, হাইপার মূদ্রাস্ফীতি পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন জিম্বাবুয়ের বাসিন্দারা।

 

দেশের অর্থনীতির হাল ভয়াবহ। মূদ্রাস্ফীতির হার তলানিতে ঠেকার দরুণ দেশটির প্রচলিত মূদ্রা ব্যবস্থা বাতিল করার নির্দেশ দিয়েছে প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের সরকার। গত বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক।

বর্তমানে জিম্বাবুয়ের আর্থিক সংকট এমন অবস্থায় দাঁড়িয়েছে যে ৩৫ লাখ কোটি জিম্বাবুয়ান ডলার দিয়ে মিলে মাত্র ১ মার্কিন ডলার, তার মানে বাংলাদেশের ৮০ টাকা!

২০০৮ সালে চরমতম অবস্থায় পৌঁছায় জিম্বাবুয়ের অর্থনীতি। মূদ্রাস্ফীতির হার দাঁড়ায় ৫০ কোটি শতাংশে, যার জেরে রোজের বাজার করতে যেতে প্লাস্টিক ব্যাগ ভর্তি টাকা নিয়ে বেরোতেন বাসিন্দারা। দিনে দুইবার করে দাম বাড়ার রেওয়াজ ছিল জিনিসপত্রের। অচলাবস্থা এড়াতে ২০০৯ সাল থেকে মার্কিন ডলার ও দক্ষিণ আফ্রিকীয় র‌্যান্ড গ্রহণ করে জিম্বাবুয়ের সরকার।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ২০০৯ সালের আগে জিম্বাবুয়ের যে সব নাগরিকের ব্যাংকে জিম্বাবুয়েয়ান ডলার অ্যাকাউন্ট রয়েছে, তারা আগামী ১৫ জুন থেকে তা মার্কিন ডলারে বদলে নিতে পারবেন। আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে পুরনো জিম্বাবুয়েয়ান ডলার ব্যাংকে ভাঙিয়ে নেওয়ার সুয়োগ পাবেন অ্যাকাউন্ট হোল্ডাররা। এইভাবেই দেশের পুরনো মূদ্রা অচল করে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে মুগাবে সরকার। খবর রয়টার্সের