Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Star Cure

বিডিনিউজডেস্ক.কম

তারিখঃ ০২.০৫.২০১৫

ঠিকমতো ঘুম না হওয়ার কারণে ওজন বৃদ্ধি, ডায়বেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি, রক্তচাপ বেড়ে যাওয়াসহ স্বাস্থ্যগত নানা সমস্যা হতে পারে।

কিন্তু একজন মানুষের প্রয়োজনের অতিরিক্ত সময় ঘুমানোও মারাত্মক ক্ষতির কারণ হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে অল্প ঘুমের মতো অতিরিক্তি ঘুমও মানুষের আয়ু কেড়ে নিতে পারে। প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য সাধারণত দিনে ঘণ্টার ঘুমকে আদর্শ বলে ধরা হয়। গবেষকদের মতে, দিনে ৬ ঘণ্টার কম বা ৮ ঘণ্টার বেশি ঘুম মানুষের আয়ু কেড়ে নিতে পারে। যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব ওয়ারউইকের কার্ডিওভাস্কুলার মেডিসিন ও এপিডেমিলজি বিভাগের অধ্যাপক ফ্রাঙ্কো কাপুচ্চি এ সংক্রান্ত বিষদ গবেষণা করেছেন। দশ বছর ধরে চালানো এসব গবেষণায় ১০ লাখের বেশি মানুষের সাক্ষাৎকার নেয়া হয়। গবেষণায় অংশ নেয়া ব্যক্তিদের ৩ ভাগে ভাগ করা হয়। একদল দিনে ৬ ঘণ্টার কম, একদল ৬ থেকে ৮ ঘণ্টা এবং অপর দল ৮ ঘণ্টার বেশি ঘুমায়। বিশ্লেষণে কাপুচ্চি দেখেন-৬ ঘণ্টার কম ঘুমান এমন লোকদের ৬ থেকে ৮ ঘণ্টা ঘুমানো লোকের চেয়ে আগাম মৃত্যুর হার ১২ শতাংশ বেশি। অপরদিকে ৮ ঘণ্টার বেশি ঘুমানো লোকদের মধ্যে এ হার ৩০ শতাংশ বেশি। আগাম মৃত্যুর এ ঝুঁকি দিনে বার কয়েক অ্যালকোহল গ্রহণের কারণে মৃত্যু ঝুঁকির সমান। শিশু, তরুণ ও প্রাপ্ত বয়স্কদের ঘুমের সময় ও ধরন আলাদা। তাই ঠিক কতটা সময় ঘুমালে তাকে অতিরিক্ত ঘুম বলা যাবে সে বিষয়েও রয়েছে বিতর্ক। তবে সব বিতর্কের পরও বিশেষজ্ঞরা একটি বিষয়ে একমত, আর তা হলো- ঘুম যতক্ষণই হোক না কেন বয়সের তুলনায় তা বেশি হলে অবশ্যই ক্ষতিকর।