মুদ্রণ

বিডিনিউজডেস্ক.কম

তারিখঃ০২.০৬.২০১৫

স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা আশংকাজনক হারে বেড়েই চলেছে ইদানীং। অন্যান্য অনেক ক্যান্সারের তুলনায় স্তন ক্যান্সারে প্রতিদিন আক্রান্ত হন অনেক বেশী সংখ্যক নারী।

শুধু নারীই নয়, স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হতে দেখা যাচ্ছে পুরুষদেরও। তাই এই ব্যাপারে সতর্কতা এবং সাবধানতাই নিশ্চিত করতে পারে সুস্বাস্থ্য। স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায় নিয়মিত ব্যায়াম, শারীরিক পরিশ্রম, সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং ওজন নিয়ন্ত্রণের অভ্যাস। আজ চিনে নিন এই মরণব্যাধি স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে কার্যকরী বিশেষ খাবার এবং জেনে নিন এই খাবারগুলো সপ্তাহে কতোটা খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত জরুরী।

১) গাজর: গাজরের বেটা ক্যারোটিন স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায় এবং ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে।

কতোটুকু খাবেনঃ ১ কাপ কাঁচা গাজর বা আধা কাপ রান্না করা গাজর সপ্তাহে ৩ বার খাবেন।

২) ব্রকলি: ব্রকলিতে বিদ্যমান সালফোরাফেইন ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে এবং সংক্রমক কোষ ধ্বংস করতে সহায়তা করে।

কতোটুকু খাবেনঃ ১ কাপ ব্রকলি সপ্তাহে ৩ বার খাবেন।

৩) বাঁধাকপি: গবেষণায় দেখা যায় সপ্তাহে ৪-৫ বার বাঁধাকপি খাওয়ার অভ্যাস স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায় প্রাউ ৭২% পর্যন্ত। বাঁধাকপির মায়রোসিনেইজ এনজাইম এবং গ্লুকোসিনোলেটস দেহের সুস্থতার জন্য অত্যন্ত কার্যকরী।

কতোটুকু খাবেনঃ ১ কাপ কাঁচা বাঁধাকপি অথবা আধা কাপ রান্না করা বাঁধাকপি সপ্তাহে ৪ বার।

৪) টমেটো: টমেটোতে রয়েছে লাইকোপেন নামক উচ্চ মাত্রার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায় এবং টিউমার বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে।

কতোটুকু খাবেনঃ অন্যান্য খাবারের সাথে স্বাদের জন্য যতোটা প্রয়োজন, তবে সপ্তাহে ৩ দিন খাবেন।

৫) রসুন: রসুন একধরণের প্রাকৃতিক ঔষধের কাজ করে। রসুনের অ্যাজোয়েইন ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে। এতে করে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায়।

কতোটুকু খাবেনঃ আধা চা চামচ তাজা রসুন কুচি সপ্তাহে ২ বার খাবেন।

৬) সাদা বাটন মাশরুম: বাটন মাশরুমের ফ্যাটি অ্যাসিড এস্ট্রোজেনের উৎপাদন কমায়। এতে করে স্তনের টিউমার বৃদ্ধির ঝুঁকি কমায় এবং স্তন ক্যান্সারে বাঁধা প্রদান করে।

কতোটুকু খাবেনঃ ১ কাপ কাঁচা মাশরুম বা আধা কাপ রান্না করা মাশরুম সপ্তাহে ২ বার খাবেন।