Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Star Cure

বিডিনিউজডেস্ক.কম

তারিখঃ১০.০৬.২০১৫

কানে ব্যথা অত্যন্ত যন্ত্রণাদায়ক সমস্যাগুলোর মধ্যে একটি। কানে ব্যথার মূল সমস্যা বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই কানের মধ্যভাগে ফ্লুইড বেড়ে যাওয়ার কারণে হয়ে থাকে।

আর ফ্লুইড বেড়ে যাওয়ার মূল কারণ হচ্ছে ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ, অ্যালার্জি, ঠাণ্ডা, কানে পানি ঢোকা, দুর্ঘটনায় কানে ব্যথা পাওয়া, ফাঙ্গাস, কানের ভেতরে ব্রণের সমস্যা, কানের কোনো রোগ ইত্যাদি সহ আরও নানা কারণ। তবে এই সময় কানে কিছু ঢোকানোর চেষ্টা করবেন না একেবারেই। এতে সমস্যা আরও বৃদ্ধি পাবে। কানে ব্যথা উপশমের জন্য ঘরোয়া চিকিৎসা নিতে পারেন। এতে চটজলদি তীব্র কানে ব্যথা থেকে মুক্তি পাবেন।

১) পেঁয়াজের ব্যবহার: পেঁয়াজের অ্যান্টিসেপটিক এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান কানে ব্যথা দ্রুত উপশমে কাজ করে।

একটি তাজা পেঁয়াজ ছেঁচে নিন। একটি পরিষ্কার পাতলা নরম কাপড়ে এই পেঁয়াজ ভালো করে পেঁচিয়ে নিন।

কাপড়ের পুটলিটি কানের উপরে ধরে রাখুন ৫-১০ মিনিট। এভাবে দিনে বেশ কয়েকবার করে নিন।

অথবা, পেঁয়াজ ছেঁচে রস বের করে দিনে ২/৩ বার ২-৩ ফোঁটা পেঁয়াজের রস কানে দিতে পারেন। এতেও অনেক উপশম হবে।

২) আদার ব্যবহার: আদার অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান কানের প্রদাহ বন্ধ করে কানের ব্যথা উপশমে বিশেষভাবে সহায়ক।   খানিকটা আদা ছেঁচে নিয়ে রস বের করে নিন। আদার রস সরাসরি কানে ড্রপারের মাধ্যমে দিতে পারেন। এতে দ্রুত ব্যথা কমে যাবে।  

অথবা, আদা ছেঁচে নিয়ে তিলের তেলে গরম করে নিন। এরপর ঠাণ্ডা হয়ে এলে ব্যথাময় কানের বাইরের অংশে ভালো করে এই তেল লাগিয়ে নিলেও ভালো কাজে দেবে।

৩) রসুনের ব্যবহার: রসুনের অ্যানালজেস্টিক এবং অ্যান্টিবায়োটিক উপাদান তীব্র কানে ব্যথার সমস্যা দূর করতে পারে অনায়েসেই।

২ টেবিল চামচ তিলের তেল নিয়ে এতে ১ চা চামচ রসুন কুচি দিয়ে গরম করে নিন।

এরপর ঠাণ্ডা হলে এই তেল ড্রপারের মাধ্যমে কানে দিন ২-৩ ফোঁটা। অনেকটা দূর হবে কানে ব্যথা।

এছাড়াও সরাসরি শুধুমাত্র রসুন ছেঁচে রস বের করে কানে দিতে পারেন, ভালো ফলাফল পাবেন। এছাড়াও গরম পানির ভাপ নেয়া, লবণ গরম করে কাপড়ে পেঁচিয়ে আক্রান্ত কানে ভাপ নেয়ার মাধ্যমেও কানে ব্যথা দূর হয় নিমেষেই। যদি এই পদ্ধতির কোনটাই কাজে না লাগে তাহলে দ্রুত ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া উচিত।