আজ শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

দেহের ওজন কমানোর জাদুকরী পদ্ধতিটি জেনে নিন

লাইফস্টাইলডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৯.০১.২০১৭

অনেকেই দেহের ওজন কমানোর জন্য নানা উপায় অবলম্বন করেন। যদিও এতে সঠিকভাবে কোনো কাজ হয় না।

ফলে ওজন বাড়তেই থাকে। তবে ওজন কমানোর সহজ একটি পদ্ধতি হলো সন্ধ্যার পর আর খাবার না খাওয়া। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।
জীবনযাপনে একটি সামান্য পরিবর্তনেই দেহের ওজন কমানো সম্ভব। আর এ পরিবর্তনটি করাও খুব কঠিন নয়।
রাতের খাবার বিকালেই শেষ করুন
গবেষকরা বলছেন ওজন কমানোর এ উপায়টি খুব সহজ হলেও অনেকেই এটি মানতে চান না। এ পদ্ধতিটি হলো, সন্ধ্যার আগেই শেষ করতে হবে রাতের খাবার। আর সবচেয়ে ভালো হয় তা বিকালেই শেষ করলে। এরপর আর কোনো খাবার খাওয়া যাবে না।
সন্ধ্যার পর খাবার না খেলে ক্ষুধা লাগবে না? এক্ষেত্রে গবেষকরা বলছেন, প্রথম দিকে কিছুটা কষ্ট হবেই। তবে আপনি যখন অভ্যস্ত হয়ে যাবেন তখন খুব একটা অসুবিধা হবে না।
সম্প্রতি এক গবেষণার আলোকেই কার্যকর এ পদ্ধতিটির কথা জানিয়েছেন গবেষকরা। এ পদ্ধতিতে দেহের চর্বি কমে যাবে এবং ওজন কমবে।
ওজন কমানোর এ পদ্ধতির নাম দেওয়া হয়েছে আর্লি টাইম-রেসট্রিকটেড ফিডিং (ইটিআরএফ)। এতে গবেষকরা দেখেছেন, তাড়াতাড়ি দিনের খাবার খেয়ে নিলে দেহের কার্বহাইড্রেট হজম করার পদ্ধতি পাল্টে যায় এবং দেহের ওজন কমে।
এ বিষয়ে গবেষণা করেছেন, কোর্টনি পিটারসন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব আলাবামার অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর। তিনি বলেন, ‘খাবার যদি দিনের একটি অল্প সময়ের মধ্যে শেষ করা যায় তাহলে তাতে ওজন কমানো সম্ভব। ’
মানুষের দেহে একটি অভ্যন্তরীণ ঘড়ি রয়েছে। আর বিপাক ক্রিয়া সবচেয়ে ভালো হয় সকালের খাবারে। এ কারণে দিনের প্রথম ভাগে সব খাবার খেয়ে নিয়ে তাতে দেহের ওপর ইতিবাচক প্রভাব পড়ে।
এর আগে প্রাণীদের ওপরেও অনুরূপ বিষয়ে গবেষণা করা হয়। তাতেও উঠে এসেছিল দেহের চর্বির মাত্রা কমাতে তাড়াতাড়ি খাবার কার্যকর।
এ বিষয়ে গবেষণাটির ফলাফল উপস্থাপিত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ অর্লিন্সে ‘দ্য ওবেসিটি সোসাইটি’র বার্ষিক সম্মেলনে।