আজ মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

দাম্পত্য সম্পর্কে সঙ্গীর রাগ ভাঙাবেন যেভাবে

লাইফস্টাইলডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১২.০১.২০১৭

মানুষের মনের রয়েছে হাজারো বাসনা ও প্রবৃত্তি।

রাগ কিংবা ক্রোধ এর মধ্যে একটি। কমবেশি রাগ তো আমরা সবাই করি। কিন্তু এর মাত্রা যখন বেশি হয়ে দাঁড়ায়, তখন সেটা সমস্যার পর্যায়ে পড়ে যায়। কারণ রাগ থেকে তৈরি হয় দূরত্ব। আর এই রাগ যদি পছন্দের মানুষটি হরহামেশাই করতে থাকেন, তখন যেন সম্পর্কটা তিক্ত হয়ে ওঠে।

ভালো লাগার মানুষের জন্য অনেকেই অনেক ত্রাগ স্বীকার করেন। শত ঝামেলা ও বাঁধা-বিপত্তি মিটিয়ে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে হয়। কিন্তু কখনো যেন এই চেনা মুখটিই অচেনা হয়ে ওঠে। বিশেষ করে সামান্যতেই রেগে গেলে বোঝা-পড়ায় একটা দূরত্বের সৃষ্টি হয়।
কিন্তু সারাক্ষণই যদি একটা মানুষ রেগে থাকে, তাহলে সেটা সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। তখন বুঝতে হবে যে অবশ্যই এর পেছনে কিছু কারণ রয়েছে। কারণটি হতে পারে তার ভেতরে থাকা অতিরিক্ত উদ্বেগ, হতাশা, একাকিত্ব, এক ঘেয়েমিবোধ কিংবা বাইপোলার ডিসঅর্ডারও থাকতে পারে। উদ্বেগ, হতাশার জন্য যে খিটখিটে আচরণ দেখা দেয়, সেটা অধিক সমস্যার সৃষ্টি করে। এর ফলে ব্যক্তির শারীরিক ও সামাজিক বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে।
আচ্ছা আপনার এই পথ চলার সঙ্গীটি কেন রেগে যাচ্ছেন, সে বিষয়ে কখনো ভেবে দেখেছেন? তিনি কি সম্পর্কের শুরু থেকেই এমন ছিলেন না এখন পরিবর্তন হয়েছে? এমনও দেখা গেছে যে শুধু রাগের কারণেই দীর্ঘদিনের একটি সম্পর্কে দূরত্ব তৈরি হয়ে যায়। আর ফলাফল দুজনেই দুই দ্বীপের বাসিন্দা।
রাগ নিরসনের উপায় :
রাগ খুবই স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। তাই বলে তো একটা সম্পর্ক এভাবে চলতে পারে না। প্রয়োজন কিছু বিষয় মেনে চলার। তার এ অস্থায়ী সমস্যাটি মেনে চললেই কিন্তু সমস্যাটা গভীর হতে পারে না। আপনি না রেগে গিয়ে ধৈর্য ধরে পছন্দের মানুষটিকে সহযোগিতা করলে সমস্যাটা অনেক হালকা হয়ে যাবে। সঙ্গীর রাগ দূর করতে আপনি যেসব সহযোগীতা করতে পারেন।
# মানুষটির মানসিকতা বোঝার চেষ্টা করুন। তার সঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করুন। তাকে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করুন যে রাগ করার ফলে আপনাদের সম্পর্কে কেমন ক্ষতি হচ্ছে।

# আমাদের মধ্যে প্রচলিত একটি ধারণা রয়েছে যে সম্পর্কে যেকোনো এক পক্ষকে ছাড় দিয়ে চলতে হয়। এটি খুবই ভুল ধারণা। একটি সম্পর্ক টিকে থাকে দুজন মানুষেরই ইচ্ছায়। কাজেই সব সময়ই যে একজনকেই মেনে নিতে হবে এমন নয়। কেননা মানব মন কখনোই এক রকম থাকে না। তাই সব সময় এমন আশা করাটাও ভুল বরং তার রাগ হলে আপনিই না হয় বুঝিয়ে বলুন।

# সরাসরি না বললে নিজে থেকেই বুঝতে শিখুন। যদি তিনি হতাশা, একঘেয়েমি থেকে এমন আচরণ করে থাকেন, তাহলে তার উদ্বেগের কারণ জানার চেষ্টা করুন। তার ভালো কাজগুলোতে উৎসাহ দিন।

# অনেক সময় তৃতীয় পক্ষের কারণেও সম্পর্কে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। তাই যতটা সম্ভব তৃতীয় পক্ষকে এড়িয়ে চলে নিজেদের মধ্যকার সমস্যা কারো সঙ্গে আলোচনা করা থেকে বিরত থাকুন।

# আবার দু’পক্ষেরই সমান জেদ থাকে। কাজেই কে কাকে আগে সরি বলবেন, এটা নিয়েও সমস্যা হতে পারে। তাই দু’জনেরই অহমবোধ কমিয়ে বোঝাপড়ার মানসিকতা রাখতে হবে।

# প্রত্যেক মানুষেরই নিজস্ব কিছু সময় কাটানোর প্রয়োজন হয়। তাই প্রিয় মানুষটিকে সময় দিন। তিনি যাতে নিজে থেকেই বুঝতে পারেন, তার সমস্যাগুলো ঠিক কোথায়।

# আর সব থেকে ভালো সমাধান হলো আপনার পছন্দের মানুষটিকে উপলব্ধি করানো যে আপনি তাকে কতটা পছন্দ করেন। এই বোধটা কিন্তু দীর্ঘদিনের একটি সম্পর্কের জন্য বেশি প্রয়োজন।
এটা শুধু রাগ ভাঙাবে না সম্পর্ককে আরো গভীর করে তুলবে। ব্যাস, পছন্দের মানুষের হাতটা ধরে এবার কাটিয়ে দিন জীবনের বাকি সময়!