আজ শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

লাইফস্টাইলডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.১১.২০১৭

ফুড অ্যালার্জির মধ্য যা আমাদের সবচেয়ে বেশি ভোগায় তা হল সি ফুড অ্যালার্জি।

বহু মানুষই রয়েছেন যাদের শরীরে সি ফুড সহ্য হয় না।

সাধারণত অপরিষ্কার ও সহজে সংক্রমিত হওয়ার কারণেই এমনটা হয়ে থাকে। সি ফুড কেনা, সংরক্ষণ ও রান্নার ব্যাপারে কিছু সাধারণ নিয়ম মেনে চললে অ্যালার্জি এড়িয়ে চলা যায়।  

 

১.  বাজার থেকে কেনা কাঁচা, টাটকা সামুদ্রিক মাছ বেশিক্ষণ ফেলে রাখবেন না। বাড়ি এসেই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ফ্রিজে ঢুকিয়ে রাখুন।

২. যদি সুপার মার্কেট থেকে ফ্রোজেন সি ফুড কেনেন তা হলে খেয়াল রাখবেন সেগুলো যেন ভাল করে প্রিজার্ভ করা হয়। ৪০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের নীচে প্রিজার্ভ করা সি ফুড কিনুন।

৩. টাটকা মাছ কিনুন বা ফ্রোজন, বড় মাছের বাজার বা বিশ্বাসযোগ্য সুপারমার্কেট, ডিপার্টমেন্টাল স্টোর থেকে কিনুন।

৪. অনেক সময়ই ফ্রিজে আমরা খাবার অগোছালো করে রাখি। রান্না করা ও কাঁচা মাছ পাশাপাশি রাখলে সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা থাকে।

কাঁচা মাছ কখনই রান্না করা মাছের কাছাকাছি রাখবেন না।

 

৫. কাঁচা ও টাটকা সামুদ্রিক মাছ ভাল রাখার জন্য সেলোফোন র‌্যাপ করে বা এয়ার টাইট কন্টেনারে ফ্রিজে রাখুন।