Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Star Cure

বিডিনিউজডেস্ক.কম| তারিখঃ ২৯.০৬.২০১৯

সুন্দরবনে বর্তমানে বাঘের সংখ্যা ১১৪টি। ২০১৫ সালে ছিল ১০৬টি বাঘ।

তিন বছরে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা বেড়েছে আটটি। পরিবেশ ও বন ও জলবায়ু মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন জাতীয় সংসদকে শনিবার এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ২০১৫ সালের শুমারিতে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ছিল ১০৬টি। ২০১৮ সালে ক্যামেরা ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে পরিচালিত জরিপে বাঘের সংখ্যা ১১৪টি।

তিনি আরো বলেন, সুন্দরবনে সুন্দরী গাছের পরিমাণ কিছুটা কমতি থাকলেও গেওয়া গাছের পরিমাণ তুলনামূলকভাবে বাড়ছে। জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে মানিকগঞ্জ-২ আসনের মমতাজ বেগমের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এই তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, সুন্দরবন রক্ষায় ৪৫৯ কোটি ৯২ লাখ ৫৬ হাজার ৯’শ টাকার পাঁচ বছর মেয়াদী প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। আগামী ১ জুলাই এ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। তিনি বলেন, সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের জন্য বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ এর ৫ (১) ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে ১৯৯৯ সালে সুন্দরবন রিজার্ভ ফরেস্টের বাইরের চারদিকে ১০ কিলোমিটার বিস্তৃত এলাকাকে সরকার প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা (ইসিএ) হিসেবে ঘোষণা করে।

তিনি আরো বলেন, সুন্দরবন প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকায় পরিবেশ দূষণকারী শিল্প কারখানা স্থাপনে পরিবেশগত ছাড়পত্র প্রদান করা হয় না। সুন্দরবন ইসিএ এলাকায় অবস্থিত বিদ্যমান শিল্প কারখানাগুলোতে মালিকগণ কর্তৃক পরিবেশ ও প্রতিবেশ দূষণের প্রয়োজনীয় প্রতিকারমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম-১১ আসনের এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে বনমন্ত্রী জানান, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের জন্য সরকার ৪৮টি সংরক্ষিত এলাকা ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে বন্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য এলাকা ২০টি, জাতীয় উদ্যান ১৯টি, ইকোপার্ক তিনটি, বিশেষ জীব বৈচিত্র্য সংরক্ষণ এলাকা দু’টি, সাফারি পার্ক দু’টি, এভিয়ারি ইকোপার্ক একটি ও মেরিন পার্ক একটি।