Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Star Cure

বিডিনিউজডেস্ক.কম| তারিখঃ ০৮.১১.২০১৯

স্থানীয় নির্বাচনগুলোতে নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে দলের যারা দাঁড়িয়েছিলেন, শাস্তির ভয় দেখালেও সম্মেলনের আগে

তাদের ক্ষমা করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ।
শর্ত সাপেক্ষে এমন প্রায় আড়াই হাজারজন ক্ষমা পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলটির কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ।

তিনি বৃহস্পতিবার বলেন, “প্রায় আড়াই হাজার বিদ্রোহী প্রার্থীকে আমরা মেইল ও চিঠি দিয়ে ক্ষমা করার কথা জানিয়ে দিয়েছি।”

সাম্প্রতিক সময়ে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন আওয়ামী লীগের অনেক নেতা। এছাড়া জেলা পরিষদ নির্বাচনেও অনেকে বিরোধিতা করেছিলেন। তাদের শোকজ নোটিসও পাঠানো হয়েছিল।
দলের সিদ্ধান্ত অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে এতদিন বলে আসছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে কাজ করা সংসদ সদস্যদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিচ্ছেলেন তিনি।

তবে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের আগে ক্ষমা পেয়ে গেলেন এই বিদ্রোহীরা।

এই ক্ষমা শর্ত সাপেক্ষে জানিয়ে গোলাপ বলেন, “তাদের শেষবারের মতো ক্ষমা করেছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভবিষ্যতে সংগঠনবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ডে জড়িত হলে, তা ক্ষমার অযোগ্য বলে গণ্য করার কথা তাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।”

আগামী ২০-২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন হবে, তার আগে এখন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সম্মেলন চলছে।

গোলাপ বলেন, “উপজেলা নির্বাচনে বিদ্রোহীদের মধ্যে ১২৬ জন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন। তবে যারা বিদ্রোহ করেছে, আমরা সবাইকে শোকজ করেছিলাম, সবাইকেই ক্ষমা করে দেওয়া হয়েছে। ক্ষমা পাওয়া আড়াই হাজারের মধ্যে জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহীরাও রয়েছে।”

এরা ক্ষমা চেয়ে দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি দিয়েছিলেন বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, “তারা ভবিষ্যতে সংগঠনের গঠনতন্ত্র, নীতি ও আদর্শ পরিপন্থি কোনো কার্যক্রমে সম্পৃক্ত না হওয়ার অঙ্গীকার করেছেন।

“সামনে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন, এই সম্মেলনকে সামনে রেখে সবাইকে শেষ বারের মতো ক্ষমা করে দেওয়া হয়েছে।”