আজ রবিবার, ২৫ জুন, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** মেহেরপুর সদর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ১১ মামলার এক আসামির মৃত্যু * ক্রেতা সেজে দোকান থেকে মালামাল চুরির অভিযোগে চট্টগ্রামে তিন জন গ্রেপ্তার * দেশের চাহিদার ৯৮ শতাংশ ওষুধ স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত হয়: সংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রী * লন্ডনে হামলাকারী দুইজনের নাম জানিয়েছে পুলিশ * সাবেক প্রধান উপদেষ্টা বিচারপতি লতিফুর রহমান মারা গেছেন

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

অ্যাঙ্গেলা দ্বিতীয় শীর্ষ ক্ষমতাধর, শেখ হাসিনা তাঁরও ওপর: হানিফ

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৭.০১.২০১৭

জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ ক্ষমতাধর ব্যক্তি, আর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দশম।

তবে ক্ষমতা, দক্ষতা, প্রাজ্ঞতা ও সৃজনশীলতার বিবেচনায় শেখ হাসিনার অবস্থান অ্যাঙ্গেলা মেরকেলেরও ওপরে বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ।বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আজ শনিবার ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে হানিফ এসব কথা বলেন।আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, জার্মানিতে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মতো রাষ্ট্রস্বার্থ বিরোধী কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা নেই। সুশিক্ষায় শিক্ষিত জাতির বিশাল রাষ্ট্রে কম জনগোষ্ঠী নিয়ে মেরকেল এগিয়ে যাচ্ছেন। সেই ক্ষেত্রে আমাদের দেশের চিত্র ভিন্ন। এখানে একটি ছোট দেশে পাকিস্তানি এজেন্ডা বাস্তবায়নকারী বিরোধী দল, জঙ্গিবাদ, দরিদ্রতার সঙ্গে লড়াই করে বিশাল জনগোষ্ঠী নিয়ে বিশ্বে উন্নয়নের নজির সৃষ্টি করেছেন শেখ হাসিনা। সুতরাং তাঁর সঙ্গে কারো তুলনা চলে না।

৫ জানুয়ারিকে গণতন্ত্রের কালো দিবস বলে আখ্যা দেওয়ায় বিএনপির নেতা মওদুদ আহমদের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, ‘৫ জানুয়ারি যদি নির্বাচন না হতো তাহলে সাংবিধানিক শূন্যতা সৃষ্টি হতো। আর এই সুযোগে অশুভ শক্তি ক্ষমতায় আসার সুযোগ পেত। বিএনপি কী তা প্রত্যাশা করেছিল?’‘আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় জামায়াত নির্বাচনে অংশ নিতে পারছিল না বলেই বিএনপি তাদের ছাড়া নির্বাচনে আসেনি। সুতরাং এর জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করে লাভ নেই’ বলেও মন্তব্য করেন হানিফ।ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদসহ সংগঠনটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা।