আজ শুক্রবার, ২৮ জুলাই, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** বনানীতে দুই তরুণীকে ধর্ষণের মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাতসহ পাঁচজনের বিচার শুরু * ভিয়েতনাম থেকে ২০ হাজার মেট্রিক টন চালের প্রথম চালান নিয়ে বন্দরে ভিড়েছে জাহাজ * লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে সংঘর্ষে চালক নিহত * তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ঢাকায় পৌঁছেছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা * সীতাকুণ্ডে নয় শিশুর মৃত্যু ও ৪৬ জনের অসুস্থতার কারণ এখনও শনাক্ত করা যায়নি * চিকিৎসকরা বলছেন, ত্রিপুরা পাড়ার অসুস্থ শিশুরা মারাত্মক অপুষ্টিতে ভুগছে * ৫৬ ইউনিয়ন পরিষদ এবং একটি করে পৌরসভা ও জেলা পরিষদের কয়েকটি ওয়ার্ডে ভোট চলছে * চট্টগ্রামে ইয়াবা ও চোলাই মদসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর * দুর্নীতির দায়ে ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলার সাড়ে নয় বছরের কারাদণ্ড

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

‘আশঙ্কা থেকে বিএনপিকে সমাবেশ করতে দেয়া হয়নি’

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১০.০১.২০১৭

নাশকতার আশঙ্কা থেকে বিএনপিকে সমাবেশ করতে দেয়া হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত জনসভার মঞ্চ পরিদর্শনে এসে সোমবার ( ৯ জানুয়ারি) বিকালে তিনি এ কথা বলেন। মঙ্গলবার ১০ জানুয়ারি এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।সমাবেশ নিয়ে সরকার দ্বৈতনীতি প্রয়োগ করছে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে কাদের বলেন, সমাবেশের অনুমতির বিষয়ে আমরা কিছু জানি না, এটা‍ ডিএমপির (ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের) বিষয়।

‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গত ৭ জানুয়ারি সমাবেশের অনুমতি চেয়েও পায়নি বিএনপি। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির পর থেকে প্রতিবছর দশম সংসদ নির্বাচনের এই দিনটিকে ‘গণতন্ত্র হত্যা’ দিবস হিসেবে পালন করে আসছে দলটি। আর আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের অভিযোগ প্রসঙ্গে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, সমাবেশের অনুমতি দেয়া না দেয়া ডিএমপির বিষয়। এখন তারা নৈরাজ্যের আভাস ইঙ্গিত পেয়েছেন কিনা? আমারতো মনে হয় সে রকম কোন বিষয় থেকে তারা অনুমতি দেন নি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অতীতে দেখা গেছে বিএনপি শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের নামে সহিংসতা করেছিল। এখানেও সেরকম কিছু ছিল কিনা সেটা ডিএমপি জানে। আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। আমরা (আওয়ামী লীগ) এখানে যারা আছি তারা অনুমোদন দেয়ার কেউ না।১০ জানুয়ারির সম্মেলনে দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখবেন জানিয়ে কাদের বলেন, জাতীয় সম্মেলনের পরে এটাই আমাদের কোন জনসভা, আর তাই আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা এখানে নীতি নির্ধারণীপূর্ণ বক্তব্য রাখবেন।তিনি বলেন, একদিকে আমাদের উন্নয়নের মহাসড়কে অভিযাত্রা। আরেকদিকে এগিয়ে যাওয়ার পথে কিছু বাধা আছে, যেটা আসতে পারে সাম্প্রদায়িক উগ্রবাদ থেকে। এ শক্তিকে প্রতিহত ও পরাজিত করার আহ্বানও তিনি বক্তব্যে করতে পারেন বলে আমি আশা করি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আগামীকালের জনসভা নিয়ে আমাদের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এখানে ঢাকা ও তার আশপাশ থেকে কয়েক লাখ মুজিবপ্রেমি লোকের স্বতঃস্ফূর্ত সমাগম হবে।সমাবেশস্থল পরিদর্শনের সময় ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে ছিলেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, এ কে এম এনামুল হক শামীম, মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, কার্যনির্বাহী সদস্য মির্জা আজম, কামরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।