মুদ্রণ

মাত্র ১৭ মিনিটে চকচকে নোট
জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ  ২২.০৯.২০১৫ 

হাতের ছাপ দিতেই মুহূর্তে যন্ত্র থেকে বেরিয়ে এল টোকেন। তারপর টাকাসহ টোকেনটি কাউন্টারে জমা দিতেই হাতে চলে এল সমপরিমাণ টাকার চকচকে নোট।

পুরো প্রক্রিয়াটি শেষ হতে সময় লাগল মাত্র ১৭ মিনিট। ঈদ উপলক্ষে নতুন নোট বিতরণে বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল শাখায় বায়োমেট্রিক বা আঙুলের ছাপ পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা এই পদ্ধতিতে প্রত্যেক গ্রাহক একবার ২, ৫, ১০ ও ২০ টাকার নতুন নোট এক বান্ডিল বা ১০০টি করে নিতে পারছেন। দ্বিতীয়বার নিতে গেলেই যন্ত্রের মাধ্যমে ধরা পড়ছে। এতে সাধারণ মানুষের সময় কম লাগছে। তবে দালাল চক্র সক্রিয় আছে। তারা নতুন নোট সংগ্রহে কৌশল পাল্টেছে। সে জন্য বাংলাদেশের ব্যাংকের সামনে অল্প কিছু অর্থ খরচ করলেই পাওয়া যাচ্ছে যেকোনো মূল্যমানের নতুন নোট।বাংলাদেশ ব্যাংক এবার ২৫ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট বিতরণ করবে। সারা দেশে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কার্যালয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের শাখা থেকে এই নোট গ্রাহকেরা কাল বুধবার পর্যন্ত নিতে পারবেন। ঈদুল আজহা উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক এবার ২৫ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট বিতরণ করবে। সারা দেশে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কার্যালয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের শাখা থেকে এই নোট গ্রাহকদের দেওয়া হচ্ছে। সুষ্ঠুভাবে নতুন নোট বণ্টনের জন্য গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল শাখায় প্রথমবারের মতো পরীক্ষামূলকভাবে আঙুলের ছাপ পদ্ধতির উদ্বোধন করেন গভর্নর আতিউর রহমান।