আজ মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ হত্যা মামলায় আপিল বিভাগের রায় ১০ অক্টোবর * বন্যায় টাঙ্গাইলে সেতুর সংযোগ সড়কে ধস; উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেলযোগাযোগ বন্ধ * রাজারবাগে এক নারী কনস্টেবলকে ধর্ষণের অভিযোগে তার এক সহকর্মী গ্রেপ্তার * কোটালীপাড়ায় হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় ফায়ারিং স্কোয়াডে ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায় * সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ হত্যা মামলায় আপিল বিভাগের রায় ১০ অক্টোবর * বন্যায় টাঙ্গাইলে সেতুর সংযোগ সড়কে ধস; উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেলযোগাযোগ বন্ধ * রাজারবাগে এক নারী কনস্টেবলকে ধর্ষণের অভিযোগে তার এক সহকর্মী গ্রেপ্তার * কোটালীপাড়ায় হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় ফায়ারিং স্কোয়াডে ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায়

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

অধিনায়ক হিসেবে ধোনি-কোহলির তুলনা করলেন অশ্বিন!

স্পোর্টস ডেস্ক | তারিখঃ ১২.০১.২০১৭

ভারতীয় ক্রিকেটের নতুন হিরো রবিচন্দ্রন অশ্বিন। টেস্টে এক নম্বর অল-রাউন্ডার হয়েছেন।

একটা সময় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন। তখন তার পাশে ছিলেন ধোনি। সেই ধোনিকেই গত কয়েকদিন আগে ক্যাপ্টেন হিসেবে সমালোচনা করেছিলেন অশ্বিন। আর এবার মহেন্দ্র সিংহ ধোনি এবং বিরাট কোহালির ক্যাপ্টেন্সির বিশেষত্বের তুলনা করলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

সাবেক ও বর্তমান দুই অধিনায়কের মানসিকতার বিশ্লেষণে অশ্বিন বলেন, কোহলি আক্রমণ করতে ভালোবাসে। উইকেট তুলতে যদি বাড়তি কিছু রান খরচ করতে হয়, তাতেও তার আপত্তি নেই। অন্যদিকে ধোনি সুযোগ বুঝে আক্রমণে যেতেন বলে অশ্বিনের মত। ধোনি চাইতেন বোলাররা আঁটসাঁট থাকুক। তার মাথার ভেতর সব সময় রান রেটের হিসেব থাকত।

অধিনায়কত্বের সবচেয়ে বড় বিষয় হলো সকলের সাথে বোঝাপড়া। এদিক দিয়ে ধোনিকেই এগিয়ে রাখলেন অশ্বিন। উইকেটকিপার হিসেবে প্রতিপক্ষের প্রতিটি ব্যাটসম্যানের গতিবিধি সবচেয়ে ভালোভাবে নজরে রাখতে পারেন তিনি। সেই অনুযায়ী নিজের বোলারদের পরিচালনা করেন তিনি। এ ভাবেই নাকি ধোনি ক্যাপ্টেন হিসেবে সফল হয়েছে।

অন্যদিকে কোহলি শর্ট কভারে দাঁড়ায়। ব্যাটসম্যানের থেকে সেটা অবশ্য খুব একটা দূরে নয়। বোলাররাও সে ভাবেই ওর সঙ্গে যোগাযোগ রাখে। অবশ্য অশ্বিনকে নাকি এই যোগাযোগ রক্ষার জন্য একটু অ্যাডজাস্ট করতে হয়েছে! যা ধোনির সাথে করতে হয়নি।

দুটি আলাদা ফরম্যাটে ক্যাপ্টেন্সি করাটা মূলত মানসিকতার পরিবর্তন। ধোনিকে ইদানীং এই কাজটি করতে হয়নি। কারণ সে টেস্ট ক্যাপ্টেন্সি ছেড়ে দিয়েছিল। ফলে এক ধরনের মানসিকতা নিয়ে চলতে পারত। অন্যদিকে কোহলির সেই সুযোগ আর এখন থেকে থাকছে না। তিন ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব করা এখন তার কাছে বড় চ্যালেঞ্জ হতে যাচ্ছে।

কোহলি গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বিভিন্ন দেশের বিপক্ষে টেস্ট ক্যাপ্টেন্সি করে আসছে। সেখান থেকে সীমিত ওভারের ফরম্যাটের নেতৃত্বের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়াটা শুরুর দিকে একটু চ্যালে