Tuesday 28th of February 2017

সদ্য প্রাপ্তঃ

***পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার * রাজধানীর কদমতলী থেকে গ্রেপ্তার জামায়াতে ইসলামীর সহযোগী সংগঠন ইসলামী ছাত্রী সংস্থার ছয় কর্মী দুই দিনের রিমান্ডে***

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

বরগুনায় পরিচয়পত্রে ভুয়া জন্মতারিখ দিয়ে পাসপোর্ট তৈরী

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১২.০১.২০১৭

নাবালক সন্তানের জমি বিক্রি করেন বাবা। দীর্ঘ ৪৪ বছর পর জাতীয় পরিচয় পত্রে জন্মতারিখ পরিবর্তন করে বয়স বাড়িয়ে বাবার বিক্রি করা কোটি টাকার সম্পত্তি বেদখল দেয়া ও জালিয়াতির মাধ্যমে পাসপোর্ট তৈরীর অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগি মো. শফিকুল ইসলাম। এ ব্যাপারে তিনি প্রধান নির্বাচন কমিশন ও বরগুনা জেলা নির্বাচন অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন।
 
বুধবার সকালে বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে অভিযোগ করেন। বরগুনা বাজার রোডের বাসিন্দা হাজী আবদুল মিয়ার ছেলে মো. আবদুর রব মিয়া ১৯৬৫ সালের ২ ফের্রুয়ারী জম্ম গ্রহন করেন। তার বাবা শিশু বয়সে আবদুর রব মিয়ার নামে বরগুনা কলেজ রোডে সাড়ে নয় শতাংশ সম্পত্তি কবলা রাখেন। পরবর্তিতে আবদুর রব মিয়া শিশু বয়স থাকা কালিন ১৯৭২ সালে ১লা জুলাই জনৈক আবদুল খালেক, নুর মোহাম্ম, শাহ আলমের নিকট ওই নাবালকের সম্পত্তি বিক্রি করেন। ওই সময় আবদুর রব মিয়ার বয়স ৭ বছর ৪ মাস ২৯ দিন। ওই জমির বাজার মুল্য এখন কোটি টাকা।
 
বিভিন্ন তথ্য সূত্রে জানা যায়, আবদুর রব মিয়া জম্ম তারিখ ১৯৬৫ সাল গোপণ করে জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে বরগুনা পাসপোর্ট অফিস থেকে ২৫-৯-২০১৪ তারিখ একটি পাসপোর্ট নিয়েছেন। পাসপোর্ট নং বিসি-০১৭৯৯২২। ওই পাসপোর্টে জম্ম তারিখ ২-২-১৯৫৪। আরো জানা যায়, আবদুর রব মিয়া বরগুনা রোডপাড়া শহীদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয় হ’তে ১৯৭৭ সালে এসএসসি পরীক্ষা দেয়। সেখানে তার জন্মতারিখ ২-২-১৯৬৫। ভোটার আইডি কার্ডে সর্ব শেষ ৫-৫-২০১৬ তারিখ পর্যন্ত তার জম্ম তারিখ ২-২-১৯৬৫। হঠাৎ করে কোটি টাকার সম্পত্তি বেদখল দেয়ার ষড়যন্ত্রে বরগুনা সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে সকল তথ্য গোপণ করে ১৭-৮-২০১৬ তারিখ তার ইস্যুকৃত ৩০-১-২০০৮ তারিখের জাতীয় পরিচয় পত্রে তার জন্মতারিখ ২-২-১৯৬৫ পরিবর্তন করে তৎস্থলে জম্ম তারিখ ২-২-৫৪ করেছেন। আবদুর রব মিয়ার জন্ম ১৯৬৫ সালে হলে ১৯৭২ সালে তার বয়স হয় ৭ বছর ৪ মাস ২৯ দিন। নাবালক বয়সে আদালতের অনুমতি নিয়ে তার বাবা সম্পত্তি বিক্রি করতে পারেন। অপর দিকে আবদুর রব মিয়ার জন্ম ১৯৫৪ সাল হলে ১৯৭২ সালে তার বয়স হয় ১৮ বছর ৪ মাস ২৯ দিন। তখন আবদুর রব মিয়া সাবালক হলে তার বাবা সম্পত্তি বিক্রি করতে আইনত পারেন না। এ কারণে কোটি টাকার সম্পত্তি আত্মসাৎ করার ষড়যন্ত্রে জাতীয় পরিচয় পত্রে ভুয়া তথ্য দিয়ে নতুন করে ২-২-১৯৫৪ জন্মতারিখ দিয়ে পরিচয় পত্র করেছেন। 
 
এ ব্যাপারে আবদুর রব মিয়া বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য নয়। আমার জম্ম তারিখ ভুল ছিল বলেই সংশোধন করেছি। বরগুনা সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার গোলাম মোস্তফা বলেন, আমার অফিসে জাতীয় পরিচয় পত্রে জন্মতারিখ ভুল হয়েছে মর্মে আবেদন করলে আমি তা সংশোধন করে দিয়েছি।