Print

ঝালকাঠি পৌর নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ আ. লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | ২৭.০৩.২০১৬

ঝালকাঠি পৌরসভা নির্বাচনে ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে পুনরায় নির্বাচন দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী আফজাল হোসেন।

তিনি আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী লিয়াকত আলী তালুকদারের বিরুদ্ধে পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে কেন্দ্র দখল করার অভিযোগ করেছেন।

আজ রোববার বেলা ১২টায় ঝালকাঠি পৌর শহরের আড়তদারপট্টির নিজস্ব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন আফজাল হোসেন।

নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয়নি জানিয়ে পুনরায় ঝালকাঠি পৌরসভার নির্বাচন দাবি করেন আফজাল হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান তিনি। এ সময় তাঁর পরিবারের সদস্য ও সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে আফজাল হোসেন অভিযোগ করেন, পৌর নির্বাচনের আগে থেকেই জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেন। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও বর্তমান পৌর মেয়র হওয়া সত্ত্বেও তাঁকে মনোনয়ন না দিয়ে কোটি টাকার বিনিময়ে লিয়াকত আলী তালুকদারকে দলের মনোনয়ন দেওয়া হয়। নির্বাচনের দিন ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পরপরই পুলিশ ও সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে ১৮টি কেন্দ্র থেকে তাঁর এজেন্টদের বের করে দেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী। খবর পেয়ে তিনি ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সিটি কিন্ডারগার্টেন কেন্দ্রে গেলে প্রিসাইডিং কর্মকর্তার সামনে নৌকায় সিল দেওয়া শতাধিক ব্যালট পেপার দেখতে পান। সন্ত্রাসীরা কেন্দ্র দখল করে ব্যালট পেপার কেড়ে নিয়ে সিল মারে। এর প্রতিবাদ করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সন্ত্রাসীরা তাঁকে মারধর করে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাঁকে বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ে (শেবাচিম) ভর্তি করা হয়। এ সুযোগে সবগুলো কেন্দ্রে ভোট জালিয়াতির মাধ্যমে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জয়ী হন। প্রহসনের এ নির্বাচন বাতিল করে তিনি পুনরায় নির্বাচন দাবি করেন। এ ব্যাপারে তিনি নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

আফজাল হোসেন আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান বলে দাবি করেন এবং আমৃত্যু আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আফজাল হোসেন আরো অভিযোগ করেন, ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগ এখন নব্য নেতাদের দখলে চলে গেছে। যারা প্রকৃত আওয়ামী লীগার, তাদের দল থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

গত ২০ মার্চ ঝালকাঠি পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী লিয়াকত আলী তালুকদার ১৭ হাজার ৩২০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন