Print

এবার শ্যালিকাকে আটকে রেখে ধর্ষণ, দুলাভাই গ্রেপ্তার

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | ০৩.০৪.২০১৬

স্কুলপড়ুয়া শ্যালিকাকে অপহরণের পরে একটি বাসায় আটকে রেখে ২৮ দিন পালাক্রমে ধর্ষণ করার অভিযোগে দুলাভাই সুলতান আহম্মেদ (৩০) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এ সময় উদ্ধার করা হয়েছে ধর্ষিতা স্কুলছাত্রীকে।
শনিবার রাতে রাজধানীর আশুলিয়া থানা এলাকায় গৌরনদী থানা পুলিশ এ অভিযান চালায়।
ধর্ষক সুলতান আহম্মেদ পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার আমলাগাছিয়া গ্রামের রশিদ গাজীর ছেলে এবং ধর্ষিতা ওই স্কুলছাত্রীর বড় বোনের স্বামী বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।
গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলাউদ্দিন মিলন জানান, গৌরনদী উপজেলার বালিকা স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী টিকাসার গ্রামে নানার বাড়িতে থেকে পড়াশুনা করে আসছিল। গত ৫ মার্চ প্রতিদিনের মতো ওই স্কুলছাত্রী ক্লাসের উদ্দেশ্যে রওনা হলে পথিমধ্যে চরগাতলী এলাকায় সুলতানের নেতৃত্বে ৪ থেকে ৫ যুবক তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।
পরবর্তীতে তাকে রাজধানীর আশুলিয়া থানা এলাকায় একটি বাসায় ২৮ দিন আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন সুলতান। এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর নানা বাদী হয়ে গত শনিবার সকালে গৌরনদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরই পরিপেক্ষিতে ওইদিন রাতেই আশুলিয়া থানা পুলিশের সহযোগিতায় ভিক্টিমকে উদ্ধার এবং ধর্ষককে আটক করা হয়।
তবে স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, সুলতান আহম্মেদের সাথে স্কুলপড়ুয়া শ্যালিকার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি সুলতান তার স্ত্রীকে ময়মনসিংহ রেখে এসে শ্যালিকাকে নিয়ে পালিয়ে ঢাকায় অবস্থান নেন। এ বিষয়টি মেনে নিতে না পাড়ায় ওই স্কুলছাত্রীর নানা বাদী হয়ে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।