আজ বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** বনানীতে দুই তরুণীকে ধর্ষণের মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাতসহ পাঁচজনের বিচার শুরু * ভিয়েতনাম থেকে ২০ হাজার মেট্রিক টন চালের প্রথম চালান নিয়ে বন্দরে ভিড়েছে জাহাজ * লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে সংঘর্ষে চালক নিহত * তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ঢাকায় পৌঁছেছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা * সীতাকুণ্ডে নয় শিশুর মৃত্যু ও ৪৬ জনের অসুস্থতার কারণ এখনও শনাক্ত করা যায়নি * চিকিৎসকরা বলছেন, ত্রিপুরা পাড়ার অসুস্থ শিশুরা মারাত্মক অপুষ্টিতে ভুগছে * ৫৬ ইউনিয়ন পরিষদ এবং একটি করে পৌরসভা ও জেলা পরিষদের কয়েকটি ওয়ার্ডে ভোট চলছে * চট্টগ্রামে ইয়াবা ও চোলাই মদসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর * দুর্নীতির দায়ে ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট লুলার সাড়ে নয় বছরের কারাদণ্ড

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

ঝালকাঠিতে নদী দখল করে বাঁধ নির্মাণের প্রতিবাদে মানববন্ধন

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১৯.০৪.২০১৬

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার কুমারখালী মরা নদীতে বাঁধ নির্মাণের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে গ্রামবাসী।

সোমবার দুপুর ১২টায় নদীর তীরের সড়কে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে স্থানীয় মৎস্যজীবী, কৃষকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক জামাল হোসেন, কৃষক জাহাঙ্গীর হোসেন, মৎস্যজীবী জব্বার সিকদার ও আশ্রাফ জোমাদ্দার।

এ সময় বক্তারা অভিযোগ করেন, প্রায় ৩০ বছর আগে সুগন্ধা নদীর বুকে চর জেগে ওঠায় কুমারখালী এলাকা থেকে ১১৯ একরজুড়ে নদীতে লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ওই অংশটি পরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নদীটি মৃত বলে ঘোষণা করে। তবে সুগন্ধা নদীর সঙ্গে সংযোগের কারণে জোয়ার-ভাটার পানি সচল থাকায় নদীর মৃত অংশে মাছ শিকার করে স্থানীয় ৩০০ পরিবার জীবিকা নির্বাহ করে। কৃষকরা ফসলের ক্ষেতে ওই নদী থেকেই পানি সরবরাহ করেন। গত ১৬ এপ্রিল স্থানীয় প্রভাবশালী অলিউর রহমান রুনু চৌধুরী, তাঁর ছেলে আসিব চৌধুরী ও রাজীব চৌধুরী ভাড়াটে লোকজন দিয়ে কুমারখালী মরা নদী দখল করে। ওই দিন থেকেই তাঁরা সুগন্ধা নদী থেকে জোয়ার-ভাটার পানি প্রবেশের স্থানটিতে বাঁধ দেওয়ার কাজ শুরু করে। স্থানীয়দের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত বাঁধ নির্মাণের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেও কাজ চালিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালী ওই মহল। এর প্রতিবাদে স্থানীয়রা ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে। সোমবার দুপুর ১২টার দিকে তাঁরা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। দ্রুততম সময়ের মধ্যে নদীতে বাঁধ দেওয়ার কাজ বন্ধ করার জন্য স্থানীয়রা প্রধানমন্ত্রী ও প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।