আজ বুধবার, ২৪ মে, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টকে সফরের আমন্ত্রণ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর * সাত দফা দাবিতে উত্তরবঙ্গে পণ্যবাহী যানবাহনের ধর্মঘট আরও ২৪ ঘণ্টা বাড়ছে * যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলায় বাস্তুহারা লীগের এক নেতাকে কুপিয়ে হত্যা, একজন আটক * সিনেটের ৩৫ জন শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনে ভোট দিচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা * সুন্দরবনে মধু সংগ্রহ করতে গিয়ে বাঘের থাবায় মৌয়ালের মৃত্যু * সৌদি আরবে শেখ হাসিনা ও ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যে শুভেচ্ছা বিনিময়

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

বান্দরবান-রুমা ফের যোগাযোগ বিচ্ছিন্নের আশংকা

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৩.০১.২০১৭

বান্দরবান-রুমা সড়কে মহাবিপজ্জহনক অবস্থায় থাকা কমপক্ষে ২৫টি বেইলি ও আধাবেইলি সেতুর পুননির্মাণ কিংবা মেরামতের কোন উদ্যাগ নেই কর্র্তৃপক্ষের।

ফলে যেকোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের বড়দুর্ঘনা। লাইমী পাড়া থেকে ড়ুমিঘাট পর্যন্ত বেইলি ও আধাবেইলি সেতুগুলোর নড়বড়ে অবস্থা এবং ওয়াইজন থেকে ২কি.মি. দুরে মোড়ে একটি আধাবেইলি সেতু যেকোন সময় ধসে পড়তে পারে। এসব এলাকায় বহু বেইলি সেতুর পাতাটন ভেঙ্গেছে, বিনষ্ট হয়ে পড়েছে। ছোট ছোট যানবাহনের চাকাও আটকে যাচ্ছে সেতুতে। ফলে আবারও সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, বান্দরবান থেকে রুমা উপজেলার কৈক্ষংঝিরি এলাকা পর্যন্ত প্রায় ৪২ কিমি সড়কজুড়ে রয়েছে প্রায় ৬০টি বেইলি ও আধাবেইলি সেতু। এসব সেতুর মধ্যে প্রায় ২৫টি সেতুই যানবাহন চলাচলের ক্ষেত্রে মহাবিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে। গত মাসের প্রথমদিকে কৈক্ষংঝিরি এলাকার রুমা বন অফিসের পাশে একটি আধাবেইলি সেতু ট্রাকসমেত ধসে পড়লে ৩ দিন সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে। ওই সময় মহাবিপাকে পড়েন বিপুল পর্যটকসহ রোয়াংছড়ি উপজেলার একাংশসহ পুরো রুমা উপজেলার উপজাতীয়রা। কারণ সেতুধসে পড়ায় কৃষকরা তাদের উৎপাতি কৃষিপণ্য পরিবহণ করতে পারেনি তিনদিন। ফলে তারা আর্থিকভাবে বিপুল ক্ষতির সম্মখিন হন। বান্দরবান-রুমা সড়কের মেরামত ও সংস্কার কাজের জন্য সরকারি কোষাগারের অঢেল অর্থ বরাদ্দ সত্বেও সড়ক উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ যানবাহন ব্যবহার অযোগ্য হয়ে পড়া সেতুগুলোর দ্রুত মেরামত কাজ শুর করছে না রসহ্যজনক কারণে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সমাজ নেতা এবং সচেতন মহল বলছেন, রুমায় জেলার খ্যাতনামা পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে এবং এসব কেন্দ্রে প্রতিদিনই শত শত পর্যটক নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে এ সড়কে। গত মংগলবার এ সড়র ব্যবহারকারী বাসযাত্রী ঢাকার পর্যটন আবদুল সালাম,মোহাম্মদ ইকবাল এবং শাকিলা পারভিন বলেন, বান্দরবানের রুমায় ৫টি পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে, অথচ পর্যটকদের সড়কপথ নিরাপদ নিশ্চিত নেই এটি উদ্বেকজনকও বটে।
জেলা সড়ক বিভাগরে প্রকৌশলীরা বলছেন, এ সড়কের মেরামত ও সেতুগুলোর পুননির্মাণ বা মেরামতের কাজ সেনাবাহনিীর নির্মাণ প্রকৌশল ব্যাটলিয়নের (১৯ ইসিবি)ওপর ন্যস্ত থাকায় তাদের পক্ষে ওভার কিছুই করা সম্ভব নয়। ১৯ইসিবির কোন কর্মকর্তা রুমা উপজেলায় কার্যস্থলে অবস্থান না করায় এবং তাদের দায়িত্বশীল কোন সদস্য সরকারি উন্নয়ন কাজের বিষয়ে কোন তথ্য প্রদান করতে পারেন না। এ কারণে প্রকৃত তথ্য জানাও কঠিন হয়ে পড়েছে। তবে সড়ক বিভাগের একজন প্রকৌশলী বলেন, বান্দরবান-রুমা সড়কে ২৩টি বিপজ্জনক ও মেরামত যোগ্য সেতু ভেংগে ফেলে নতুন করে আরসিসি সেতু নির্মাণের কথা রয়েছে। কবে নাগাদ এসব সেতু নির্মাণ করা হবে তা জাাননো হয়নি।