Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

Premier Bank Ltd

বিডিনিউজডেস্ক.কম | তারিখঃ ০৯.০৮.২০১৫

মাগুরায় যুবলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে মাতৃগর্ভে শিশু গুলিবিদ্ধ ও একজন নিহতের ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগ নেতা সুমন সেনের সাতদিনের পুলিশি হেফাজত (রিমান্ড) মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ রোববার দুপুরে মাগুরার জ্যেষ্ঠ বিচারিক আদালতে শুনানি শেষে বিচারক ফারাহ মামুন এ রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন। গত ৪ আগস্ট সুমনকে আদালতে হাজির করে রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ। বিচারক তাঁকে জেলহাজতে পাঠিয়ে রিমান্ড শুনানির জন্য আজ রোববার ধার্য করেন। আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গত ২৩ জুলাই বিকেলে মাগুরা শহরের দোয়ারপাড়ায় যুবলীগকর্মী কামরুল ভূঁইয়ার সঙ্গে যুবলীগকর্মী মহম্মদ আলী ও আজিবরের সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়। এ সময় কামরুলের বড় ভাই বাচ্চু ভূঁইয়ার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী নাজমা বেগম (৩০) ও চাচা মোমিন ভূঁইয়া গুলিবিদ্ধ হন। ওই রাতেই মাগুরায় অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে নাজমার গুলিবিদ্ধ শিশুটি ভূমিষ্ঠ হয়। পরদিন রাতে মাগুরা সদর হাসপাতালে মোমিন ভূঁইয়া মারা যান। দুদিন পর গুলিবিদ্ধ শিশুটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে নাজমাকেও ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। নাজমা ও তাঁর শিশু এখন সেখানেই চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় মামলার পর জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সুমন সেন, যুবলীগকর্মী সাগর হোসেন ও বাপ্পী বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার করা হয়।