Print

নবজাতকের ৩০ মিনিটের জীবন

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ২৫.০৪.২০১৬

মৃত্যুর পূর্বে নিজের নামও প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি ৩০ মিনিটের জন্য পৃথিবীতে আসা নবজাতক।

দেখেনি পৃথিবীর আলো। এর মধ্যেই একটি ঘাতক বাস কেড়ে নেয় ওই নবজাতকের প্রাণ।কুমিল্লার চান্দিনায় এ্যাম্বুলেন্স ও যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও সাতজন।রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনা উপজেলা গেইট এলাকায় ওই নবজাতককে বহনকারী এ্যাম্বুলেন্স ও যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।নবজাতকের মায়ের নাম রূপালী বেগম ও বাবার নাম মোহাম্মদ হাসান। তাদের বাড়ি দাউদকান্দির দড়ানিপাড়া গ্রামে।জানা যায়, দড়ানিপাড়া গ্রামের সৌদী প্রবাসী মোহাম্মদ হাসানের স্ত্রী রূপালী বেগমের প্রসব ব্যথা অনুভব হয় ভোর ৪টার পর থেকে। গ্রাম্য সনাতন পদ্ধতিতে নিজ বাড়িতে বহু চেষ্টা করেও স্বাভাবিক নিয়মে প্রসব সম্ভব হয়নি।পরবর্তীতে সকাল সাড়ে ১১টায় তাকে চান্দিনার মেডিকেয়ার নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে সিজার না করে অদক্ষ নার্স স্বাভাবিক ডেলিভারী করায়। ফলে নবজাতকের অবস্থার অবনতি হয়।তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় একটি এ্যাম্বুলেন্সযোগে তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। এ্যাম্বুলেন্সটি মাত্র ২০শ গজ অতিক্রম করার পরই বিপরীত দিক থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে।হাইওয়ে পুলিশ ময়নামতি ক্রসিং ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস ছালাম জানান, মূলত এ্যাম্বুলেন্সটি উল্টো পথে আসার কারণেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। নবজাতক শিশু ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। আহতদের উদ্ধারে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।