Print

মাগুরায় মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে গেল রিপন
জাতীয় ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.১০.২০১

মাগুরা সদরের ভিটাসাইর গ্রামে রিপন নামের ১জনকে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করেছে ঐ এলাকার স্থানীয় সন্ত্রসী জাকির।

রিপন ভিটাসাইর গ্রামের মজনু খাঁ’র ছেলে।রিপন জানায়- সে সকাল ৮টার সময় তার হাইকোর্টে চলমান মামলার জন্য ৮০,০০০/= টাকা পৌছে দিতে যাচ্ছিল কেসের নির্ধারিত উকিলের কাছে। বাড়ি থেকে বের হওয়ার পরই ওৎ পেতে থাকা জাকির ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা চোর বলে চিৎকার দিয়ে রিপনকে ধরে লোহার রড ও হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করে।একপর্যায়ে রিপনকে ধরে নিয়ে যায় ভিটাসাইর গ্রামের মারকাজ মসজিদের পিছনে। সেখানে রিপনের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল সেট কেড়ে নিয়ে জাকির, জাকিরের তিন ভাই, ভাস্তে ও জাকিরের বাবা রিপনের গলায় রামদা ধরে জবাই করে ফেলতে গেলে এলাকার লোকজন পুলিশে খবর দেয়।পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে রিপনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ বিষয়ে পুলিশ পরিদর্শক এস আই মিলন সাংবাদিককে জানান- ঘটনাস্থল থেকে রিপনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে আমরা জাকিরের খোজেঁ বেরিয়ে পড়ি। কিন্তু তাদের বাড়ি ও আসেপাশে কাউকে পাওয়া যায়নি। জাকির ঐ এলাকার মজিদের ছেলে।এলাকার বিশেষ সূত্র জানায়- জাকির অনেকদিন ধরেই এ ধরণের সন্ত্রাসী কাজের সাথে জড়িত। পূর্বেও এরকম ঘটনা ঘটেছে। নিরাপরাধ লোকজনকে ধরে নিয়ে চাঁদা আদায়, ছিনতাইসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্যের ব্যবসা করে আসছে জাকির ও তার পরিবার। এদের মদতদাতা শক্তিশালী হওয়ায় এলাকার লোকজন ভয়ে মুখ খুলতে চায় না।এস আই মিলন জানান- মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।