Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Premier Bank Ltd

খুলে যাচ্ছে ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের দরজা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক  | তারিখঃ  ১৫.০৯.২০১৫

ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের পাঠাগারের দরজা খুলে দেওয়া হতে পারে সাধারণ দর্শকদের জন্য।

এতদিন শুধুমাত্র বিশেষ অনুমতি সাপেক্ষে গবেষক বা ইতিহাসবিদরা এই পাঠাগারে প্রবেশের অনুমতি পেতেন।বর্তমানে শুধু সাধারণ পাঠক নয়, স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীদের জন্যও গ্রন্থাগারের দরজা খুলে দেওয়ার কথাও ভাবছেন কর্তৃপক্ষ। ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের গ্রন্থাগারে প্রায় ১৭ হাজার বই রয়েছে। ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের বাইরের মাঠে আপাতত একটি অস্থায়ী কাঠামোই নির্মাণ করা হবে। সেখানেই সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে গ্রন্থাগার। পরে সম্পূর্ণ কাঁচের একটি কাঠামো নির্মাণ তৈরি করে পাকাপাকি ভাবে গ্রন্থাগার নির্মাণ করা হবে।তবে কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের হেরিটেজ বৈশিষ্ট্যের কথা মাথায় রেখেই এটি নির্মাণ করা হবে। কাঁচের তৈরি কাঠামোর মধ্যে দিয়ে সরাসরি ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের হলটি দেখা যাবে।এ বাড়ি নির্মাণে অভিনব পদ্ধতির নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। গোটা নির্মাণটি একটি কারখানা তৈরি করে হবে। তারপর সেটিকে শুধুমাত্র ভিকটোরিয়া চত্বরে এনে জুড়ে দেওয়া হবে।সম্প্রতি ভারতের হরিয়ানায় এ পদ্ধতি ব্যবহার করে মাত্র দু’দিনে একটি বহুতল বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। এই নতুন পদ্ধতি ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের পাঠাগারের ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হতে পারে বলে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে। দুর্লভ বইয়ের এ সংগ্রহের নিরাপত্তার জন্য ব্যবহার করা হবে বিশেষ নিরাপত্তা পদ্ধতি।সব বইকে জিজিটাল রূপ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের গ্রন্থাগার সাধারণ পাঠকদের জন্য খুলে দেওয়ার একটা দাবি দীর্ঘ দিন ধরেই কলকাতার ইতিহাস উৎসাহী মানুষদের মধ্যে ছিল। শুধু কলকাতার মানুষ নয় বিদেশী পর্যটকদের কাছেও গ্রন্থাগারের অমূল্য বইয়ের উপর যথেষ্ট আগ্রহ রয়েছে।মনে করা হচ্ছে এ পাঠাগার খুলে গেলে শুধু কলকাতার সাধারণ মানুষ নয়, দেশি বিদেশী পর্যটকদের কাছ একটি বিশেষ আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠবে ভিকটোরিয়া মেমোরিয়ালের এই পাঠাগার।