আজ শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন * শোকের দিনে খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন চলতে থাকলে বিএনপির সঙ্গে আলোচনা নয়: কাদের * মৌলভীবাজারের রাজনগরে যুদ্ধাপরাধ মামলার সাক্ষীর ওপর হামলার অভিযোগ * গাজীপুরের টঙ্গীর রাস্তায় দুইজনের লাশ; পুলিশের ধারণা, তারা গাড়িচাপায় নিহত হয়েছে * ঢাকার পান্থপথে একটি আবাসিক হোটেলে পুলিশের অভিযানে সন্দেহভাজন জঙ্গি নিহত * আত্মসমর্পণের আহ্বানে সাড়া না দিয়ে ওই ‘জঙ্গি’সুইসাইড ভেস্টে বিস্ফোরণ ঘটায়: পুলিশ * নিহত যুবক খুলনা বিএল কলেজের ছাত্র, বাড়ি ডুমুরিয়ায়; পুলিশ বলছে, সে নব্য জেএমবির সদস্য

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

জাবিতে প্রক্টরের পদত্যাগ দাবিতে বিক্ষোভ

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৩.০৫.২০১৬

পুলিশি হামলায় মদদদানের অভিযোগ তুলে প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহার পদত্যাগের দাবিতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে।

পদত্যাগ দাবি তোলার পর প্রতিদিনই কোনো না কোনো কর্মসূচি পালন করছে আন্দোলনকারী বাম প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলো। এরই অংশ হিসেবে আজ মঙ্গলবার দুপুরে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন আন্দোলনকারীরা।

প্রগতিশীল ছাত্রজোট, সাম্রাজ্যবাদবিরোধী ছাত্র ঐক্য ও জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোটের ব্যানারে সমাজবিজ্ঞান অনুষদ থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশে ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সভাপতি দীপাঞ্জন সিদ্ধান্ত কাজল বলেন, ‘এ প্রক্টর বারবার বিতর্কের জন্ম দিলেও এখন পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। কী কারণে প্রশাসন এ ধরনের পক্ষপাতমূলক আচরণ করছে, তা আমাদের জানা নেই। প্রক্টর পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আমরা এ আন্দোলন চালিয়ে যাব।’ এ সময় আগামীকাল বুধবার থেকে ছাত্র ইউনিয়ন গণসংযোগ চালাবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি জুবায়ের টিপু বলেন, ‘৩ মের মধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য আমাদের আশ্বাস দিলেও এখন পর্যন্ত কোনো তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়নি। এতে কী প্রমাণিত হয়? এখানে স্পষ্ট যে, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও এই নির্লজ্জ প্রক্টরের পক্ষাবলম্বন করছে।’

এর আগে ২৫ এপ্রিল প্রগতিশীল ছাত্রজোট এবং সাম্রাজ্যবাদবিরোধী ছাত্র ঐক্যের ডাকা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে হরতাল পালনকালে পুলিশ ছাত্রদের ওপর হামলা চালায়। এতে ২০ জন আহত ও ১২ জন আটক হয়।

প্রক্টরের যোগসাজশে এ হামলা ও আটকের ঘটনা ঘটেছে এমন অভিযোগ তুলে শিক্ষার্থীরা ওই দিন থেকে প্রক্টরের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন করে যাচ্ছেন।