Print

পুলিশের বিরল দৃষ্টান্ত!

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১১.০৫.২০১৬

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত স্বামীর পকেটে ছিল নগদ ৯৫ হাজার টাকা।

স্বামীর মৃত্যু সংবাদের সঙ্গে বাড়তি শোক ছিল টাকা হারানোর। কিন্তু না, স্বামী জীবিত ফিরেননি তবে তার টাকা ঠিকই ফিরে আসে। সেই টাকা ফিরিয়ে দিয়েছিলেন নেত্রাকোনা কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম। গত সোমবার দুপুরে কোতোয়ালী থানায় ওসির কাছ থেকে টাকা ফিরে পেয়ে আবেগআপ্লুত সদ্য বিধবা বিউটি (২৫) বলেন, ‘এমন রেকর্ড আর দেহি নাই। পুলিশ আবার টাহাও ফেরত দে।’ এসময় বিউটির সাথে ছিল তার ছেলে ইসলাম (৯), বাবা আব্দুর রশিদ মল্লিক (৬৭) ও নিহত আব্দুল হাকিমের বড় ভাই আব্দুল হামিদ। তাদের বাড়ি নেত্রকোন জেলার পূর্বধলার খলিশাপুর ইউনিয়নের শিমুলকান্দি গ্রামে। গত ৫ মে বৃহস্পতিবার ময়মনসিংহ নেত্রকোনা মহাসড়কের শম্ভুগঞ্জের মুদারপুরে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায় ৮ জন। এদের মধ্যেই ছিলেন পূর্বধলা উপজেলার শিমুলকান্দির পোল্ট্রিখামারী আব্দুল হাকিম। মুরগীর খাবার কিনতেই তিনি ৯৫ হাজার টাকা পকেটে নিয়ে ময়মনসিংহে আসার পথে লাশ হন। দুর্ঘটনার পর পুলিশ দ্রূত ঘটনাস্থলে পৌঁছে এবং নিহতদের লাশ উদ্ধার করে। এ সময় নিহত হাকিমের পকেটে টাকা দেখতে পেয়ে ওসি কামরুল ইসলাম তা নিজের কাছেই রাখেন। পরে নিহতের পরিবারকে খবর দেন। সেই খবর পেয়েই সোমবার নিহত হাকিমের স্ত্রী-সন্তানের হাতে ৯৫ হাজার ২০০ টাকা তুলে দেন। তখনই আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন বিউটি।