আজ বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

‘ভবদহে আর এসকেভেটর আনা সম্ভব না’

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১৪.১০.২০১৬

পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির নেতারা গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার পর পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) খুলনায় কর্মরত তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলীর কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে।

স্মারকলিপিতে সংগঠনটির নেতারা আরো এসকেভেটর এনে দ্রুত পানি নিষ্কাশনের দাবি জানিয়েছেন। স্মারকলিপি গ্রহণ করে পাউবোর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী জুলফিকার আলী হাওলাদার বলেছেন, ‘পানিবন্দি মানুষের দাবি বিবেচনায় নেওয়া হবে। তবে এই মুহূর্তে ভবদহ অঞ্চলে আর এসকেভেটর আনা সম্ভব নয়।’ স্মারকলিপিতে ভবদহ অঞ্চলের ভয়াবহ বিপর্যয় তুলে ধরা হয়। বলা হয়, ‘দীর্ঘদিন ধরে এলাকাটির কয়েক লাখ মানুষ পানিবন্দি থাকা সত্ত্বেও পাউবো হাত গুটিয়ে বসে আছে; যা অত্যšন্তনিষ্ঠুর ও অমানবিক। এই বিপর্যয়ের দায় পাউবো এড়াতে পারে না।’ বলা হয়, ‘গত দুই মাসে এলাকা থেকে মাত্র ১৫ ইঞ্চি পানি নেমেছে। ফলে আসন্ন বোরো মৌসুমে বি¯স্তর্ণ অঞ্চলে ধান চাষ করা সম্ভব হবে না। কোটি কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে ফসল, মাছ ও বসতবাড়ির।’

স্মারকলিপিতে জরুরিভিত্তিতে ভবদহে আরো তিনটি এসকেভেটর এনে নদী খনন শুরু করা, আমডাঙ্গা খাল প্রশস্ত করে রাজাপুর খালের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন, মাঘী পূর্ণিমার আগে বিলকপালিয়ায় টিআরএম চালু, ক্ষতিগ্রস্তদের খাদ্য নিরাপত্তা ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা, পাউবোর দুর্নীতি-অনিয়ম বন্ধ ও বর্তমান বিপর্যয়ের জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং টেকা-মুক্তেশ্বরী নদীর সঙ্গে উজানে ভৈরব-মাথাভাঙ্গার সংযোগ দেওয়ার দাবি জানানো হয়।এছাড়া স্মারকলিপিতে এলাকার জলাবদ্ধতা সমস্যা সমাধানে দীর্ঘমেয়াদে বাস্তবায়নের জন্য দশ দফা সুপারিশ তুলে ধরা হয়। স্মারকলিপি প্রদানকালে সংগ্রাম কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ, আহ্বায়ক রণজিৎ বাওয়ালী, বৈকুণ্ঠবিহারী রায়, গাজী আব্দুল হামিদ, চৈতন্য পালসহ বিভিন্ন গ্রামের প্রতিনিধিত্বকারীরা উপস্থিত ছিলেন।স্মারকলিপি প্রদান শেষে সংগ্রাম কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ সুবর্ণভূমিকে বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী পানিবন্দি মানুষের কষ্টের কথা শুনেছেন। তিনি জানিয়েছেন, দুর্দশাগ্র¯স্তমানুষের দাবি বিবেচনায় নেবেন। তবে এই মুহূর্তে ভবদহ এলাকায় আর এসকেভেটর আনা সম্ভব নয়।’ইকবাল কবির জাহিদ বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলীর কথা শুনে মনে হয়েছে, তিনি ভবদহ অঞ্চলের কোনো খোঁজই রাখেন না। আমরা পাউবোর দুর্নীতি-অব্যবস্থাপনায় জড়িতদের শাস্তি চেয়েছি।’আগামী ১৯ অক্টোবর বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জমায়েত শেষে পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী প্রধনমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হবে বলে জানান সংগ্রাম কমিটির নেতারা।