আজ বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ হত্যা মামলায় আপিল বিভাগের রায় ১০ অক্টোবর * বন্যায় টাঙ্গাইলে সেতুর সংযোগ সড়কে ধস; উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেলযোগাযোগ বন্ধ * রাজারবাগে এক নারী কনস্টেবলকে ধর্ষণের অভিযোগে তার এক সহকর্মী গ্রেপ্তার * কোটালীপাড়ায় হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় ফায়ারিং স্কোয়াডে ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায় * সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ হত্যা মামলায় আপিল বিভাগের রায় ১০ অক্টোবর * বন্যায় টাঙ্গাইলে সেতুর সংযোগ সড়কে ধস; উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেলযোগাযোগ বন্ধ * রাজারবাগে এক নারী কনস্টেবলকে ধর্ষণের অভিযোগে তার এক সহকর্মী গ্রেপ্তার * কোটালীপাড়ায় হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় ফায়ারিং স্কোয়াডে ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায়

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৯.০৯.২০১৭

নড়াইলে গ্রাম বাঙলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্ব বরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এস এম সুলতান ফাউন্ডেশনের আয়োজনে প্রাণ আপের সহযোগিতায় শনিবার দুপুরে চিত্রা নদীতে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

পুরুষদের নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা নবনির্মিত শেখ রাসেল সেতু থেকে শুরু হয়ে তিন কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করে এসএম সুলতান সেতুতে গিয়ে শেষ হয়। নারীদের শেখ রাসেল সেতু থেকে শুরু হয়ে বাঁধাঘাটে গিয়ে শেষ হয়।  

শহরের বাঁধাঘাট এলাকায় এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বিরেন শিকদার এমপি। এস এম সুলতান ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মো. এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য দেন পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা সেলিম প্রমুখ।

দেশের খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, গোপালগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলা থেকে ১৫টি পুরুষ এবং পাঁচটি নারী দলের নৌকা এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। নৌকা বাইচ ভালো লাগার কথা জানিয়ে দর্শকরা বলেন, প্রতিবছর এ প্রতিযোগিতা দেখতে আসি। প্রতিবছর আমরা এ দিনটির জন্য অপেক্ষায় থাকি। আয়োজকরা জানান, সুলতান সবসময় গ্রাম-বাংলার সাংস্কৃতিকে লালন পালন করতেন। আর তার সেই আজীবনের লালিত স্বপ্নকে ধরে রাখতেই প্রতিবছর নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।