Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Star Cure

রূপপুর পরমাণুবিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন

বিডিনিউজডেস্ক.কম | তারিখঃ ১৪.০৭.২০১৮

পাবনার রূপপুর পরমাণুবিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটের মূল নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে দ্বিতীয় ইউনিট নির্মাণে কংক্রিট ঢালাই কাজ উদ্বোধন করেন তিনি।

এর আগে বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ হেলিকপ্টারে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র হেলিপ্যাডে অবতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী। এসময় প্রধানমন্ত্রী সঙ্গে ছিলেন রাশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী ইউরি ইভানোভিচ বোরিসভ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক দীপু মনি প্রমুখ। গত বছরের ৩০ নভেম্বর শেখ হাসিনা রূপপুরে পরমাণু চুল্লির জন্য কংক্রিটের মূল স্থাপনা নির্মাণ উদ্বোধন করেছিলেন, যার মধ্য দিয়ে শুরু হয় দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মূল নির্মাণ পর্বের কাজ।

ওই সময় থেকে ৬৮ মাসের মধ্যে মূল স্থাপনা নির্মাণের কথা রয়েছে এ কাজের দায়িত্ব পাওয়া রাশিয়ার কোম্পানি অ্যাটমস্ট্রয় এক্সপোর্টের। সরকার আশা করছে, ২০২৩ সালের মাঝামাঝি সময়ে রূপপুরের ১২০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার প্রথম ইউনিটের বিদ্যুৎ যোগ হবে জাতীয় গ্রিডে। পরের বছর চালু হবে সমান ক্ষমতার দ্বিতীয় ইউনিট।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী এক বাণীতে বলেছেন, নির্ধারিত সময়েই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। মাত্র সাত মাস আগে, ২০১৭ সালের নভেম্বরে, প্রথম ইউনিটের প্রথম কংক্রিট ঢালাই শুরু করা হয়। সে ইউনিটের নির্মাণ কাজ অনেক দূর এগিয়েছে। তিনি বলেন, এবার শুরু হলো দ্বিতীয় ইউনিটের নির্মাণ। আমি আশা করি, নির্ধারিত সময়েই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণকাজ আমরা সম্পন্ন করতে সমর্থ হবো। এছাড়া এদিন পাবনাবাসীর দীর্ঘদিনের চাওয়া পাবনা-মেঝগ্রাম রেলপথের উদ্বোধনসহ ৩১টি প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও ১৮টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিকেলে তিনি জেলা পুলিশ লাইন মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখবেন। প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে ব্যানার, ফেস্টুন আর তোরণে ছেয়ে গেছে পুরো জেলা। প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।