আজ বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ হত্যা মামলায় আপিল বিভাগের রায় ১০ অক্টোবর * বন্যায় টাঙ্গাইলে সেতুর সংযোগ সড়কে ধস; উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেলযোগাযোগ বন্ধ * রাজারবাগে এক নারী কনস্টেবলকে ধর্ষণের অভিযোগে তার এক সহকর্মী গ্রেপ্তার * কোটালীপাড়ায় হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় ফায়ারিং স্কোয়াডে ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায় * সৌদি দূতাবাস কর্মকর্তা খালাফ হত্যা মামলায় আপিল বিভাগের রায় ১০ অক্টোবর * বন্যায় টাঙ্গাইলে সেতুর সংযোগ সড়কে ধস; উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেলযোগাযোগ বন্ধ * রাজারবাগে এক নারী কনস্টেবলকে ধর্ষণের অভিযোগে তার এক সহকর্মী গ্রেপ্তার * কোটালীপাড়ায় হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় ফায়ারিং স্কোয়াডে ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায়

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

পৌষের শীতে বৃষ্টিতে নাকাল রাজশাহীবাসী

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১০.০১.২০১৭

একে শীত, দুয়ে বৃষ্টি।

এ দুই মিলে মঙ্গলবার ভোর থেকে নগরবাসীদের ভোগান্তি চরমে উঠেছে। রাতে আকাশ ভালো থাকলেও ভোর থেকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়। রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের তথ্যানুযায়ী সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এক দশমিক ২ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। হাড় কাঁপুনি শীতে বৃষ্টি আগমণ ঠান্ডার পরিমাণকে আরও কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে।মঙ্গলবার ভোর ৫টা থেকে রাজশাহীতে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়। সকাল সোয়া ৯টা পর্যন্ত যার পরিমাণ ছিলো দশমিক ৪ মিলিমিটার। দুপুর ১২টায় তা বেড়ে হয়েছে এক দশমিক ২ মিলিমিটার।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক আব্দুস সালাম ব্রেকিংনিউজকে জানান, রাজশাহীতে মঙ্গলবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তাপমাত্রা বেশি হলেও আবহাওয়ার কারণে ঠান্ডার মাত্রা অনেক বেড়ে গেছে।এদিকে সকাল থেকে বিরামহীন বৃষ্টির কারণে নগরবাসীর ভোগান্তি চরমে উঠেছে। অফিস ও জরুরি কাজে বাইরে যাওয়া মানুষদের নানা বিড়ম্বনায় পড়তে দেখা গেছে। রিকশা, অটোরিকশাও ছিল হাতে গোনা। সাধারণ মানুষ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে খুব একটা বের হচ্ছে না।

শীতের বৃষ্টিতে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষগুলো। একে তো তাদের পর্যাপ্ত গরম কাপড় নেই তার উপর আবার পৌষের বৃষ্টি। সব মিলিয়ে ভোগান্তিটা যেন খেটে খাওয়া মানুষদেরই বেশি। বিশেষত, যারা দিন আনে দিন খায় এমন মানুষদের অনেকেই আজ বৃষ্টিতে গৃহবন্দি। কাজে যেতে না পেরে তাদের অনেককে আজ না খেয়ে দিনাতিপাত করতে হবে।তবুও বৃষ্টি ভেজা শীতে সব কাজ ফেলে গুটিসুটি মেরে বসে আছেন দরিদ্র মানুষগুলো। ভাতের অনিশ্চয়তা থাকলেও এই বৃষ্টিই হয়তো এক মুহূর্তের জন্য তাদেরকে অলস সময় উপহার দিয়ে যাচ্ছে।