Monday 1st of May 2017

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** রোজা সামনে রেখে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু ১৫ মে; ২৮১১ জন পরিবেশক ও ১৮৫ ট্রাকের মাধ্যমে বিক্রি করা হবে চিনি * হাওরে বাঁধ নির্মাণে গাফিলতি থাকলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: সুনামগঞ্জে প্রধানমন্ত্রী * ফরিদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে প্রতিপক্ষের হামলা, সংঘর্ষে নিহত ১ * অর্থ মন্ত্রণালয়ের ‘ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান’ বিভাগের নাম এখন শুধু ‘আর্থিক প্রতিষ্ঠান’* সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার * নিউ ইয়র্কে মুক্তিযোদ্ধা ও আবৃত্তিশিল্পী কাজী আরিফের জানাজা, মরদেহ দেশে আসবে মঙ্গলবার

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

নীলফামারীতে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের পৃথক কর্মসূচি

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৫.০১.২০১৭

নীলফামারীতে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মুখোমুখি অবস্থানের মধ্য দিয়ে পৃথক দুই স্থানে পালিত হয়েছে পাঁচ জানুয়ারির ‘গণতন্ত্র রক্ষা দিবস’।

এক পক্ষের নেতৃত্ব দেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ অপর পক্ষের নেতৃত্ব দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক।দুই পক্ষের পৃথক শোভাযাত্রা ও সমাবেশ করার ঘোষণায় শহরে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। সংঘাত এড়াতে শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে পৌর আওয়ামী লীগের ব্যানারে শহরের চৌরঙ্গী মোড় এলাকা থেকে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হকের নেতৃত্বে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের বড়বাজার অতিক্রম করে ডালপট্টি এলাকা পর্যন্ত প্রদক্ষিণ করে। এর প্রায় ১০ মিনিট পর জেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদের নেতৃত্বে শহরের শহীদ মিনার চত্বর থেকে অপর শোভাযাত্রাটি বের হয়ে বড়বাজার এলাকা থেকে ফিরে শহীদ মিনার চত্বরে সমাবেশ করে। পৌর আওয়ামী লীগের শোভাযাত্রাটি অল্প সময় পর চৌরঙ্গী মোড়ে এসে সমাবেশ করে।শহীদ মিনার চত্বরের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহম্মেদ। বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রশীদ, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রাবেয়া আলীম, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াহিয়া আবীদ, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন, যুব মহিলা লীগের সভাপতি আরিফা সুলতানা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সজল কুমার ভৌমিক, সাধারণ সম্পাদক নোহেল রানা প্রমুখ।

অপরদিকে, চৌরঙ্গী মোড়ে পৌর আওয়ামী লীগের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম। এতে বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি অক্ষয় কুমার রায়, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলিমুদ্দিন বসুনিয়া, সাধারণ সম্পাদক আবুজার রহমান, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কামরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক দীপক চক্রবর্তী, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি লেমন বসুনিয়া, মনিরুল ইসলাম প্রমুখ।জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক অভিযোগ করে বলেন, “আমাদের পূর্বঘোষিত স্থান শহীদ মিনারে সমাবেশ করার কথা ছিল, সে হিসেবে আমরা সেখানে মঞ্চ করে ব্যানার টাঙ্গিয়েছিলাম। তাঁদের সমাবেশ করার কথা ছিল চৌরঙ্গী মোড়ে। কিন্তু তাঁরা আমাদের ব্যানার সরিয়ে দিয়ে আমাদের জায়গা দখল করেন। এ কারণে আমরা সংঘাতে না জড়িয়ে চৌরঙ্গী মোড়ে সমাবেশ করেছি। ” নীলফামারী সদর থানার ওসি মো. বাবুল আকতার বলেন, “জেলা আওয়ামী লীগ ও পৌর আওয়ামী লীগ পৃথক কর্মসূচি দেওয়ায় শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে দুপুর ১টার দিকে উভয় পক্ষের সমাবেশ শেষ হয়।