মুদ্রণ

বিডিনিউজডেস্ক.কম | তারিখঃ ০২.০৮.২০১৫
পৃথিবীর অন্যতম সেরা সম্পর্কের মধ্যে একটি হচ্ছে বন্ধুত্বের সম্পর্ক। সব সম্পর্কের মাঝেই রয়েছে একটি নির্দিষ্ট সীমা কিন্তু বন্ধুত্বের সম্পর্ক এমনই এক সম্পর্ক যার মাঝে কোন সীমা পরিসীমার কোন হিসেব নেই।

একারণেই জীবনের প্রতিটি ক্ষণে আর কেউ সঙ্গে থাকুক বা না থাকুক প্রাণপ্রিয় বন্ধুরা থাকবেই।আর একারণেই বন্ধুত্বের সম্পর্কের প্রতি সম্মান ও আস্থা রেখে প্রতি বছর পালিত হয়ে আসছে বিশ্ব বন্ধু দিবস।পৃথিবীর অনেক দেশের মতই বর্তমানে বাংলাদেশেও পালিত হয় এ দিনটি।তবে  বন্ধুত্ব সম্পর্কটি অনেক পুরনো হলেও   বন্ধু দিবসের উদযাপন কিন্তু খুব পুরনো নয়।
প্রায় ৮০ বছর আগে মাত্র!! বন্ধু দিবসের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করতে গিয়ে অধিকাংশ মানুষ যে ঘটনাটির কথা উল্লেখ করেন সেটি হলো, ১৯৩৫ সালে আমেরিকান সরকার এক ব্যক্তির মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়ালে পরদিন সেই ঘটনার প্রতিবাদে তার এক বন্ধু আত্মহত্যা করেন।
দিনটি ছিল আগস্ট মাসের প্রথম রবিবার। আর সেই থেকেই জীবনের নানা ক্ষেত্রে বন্ধুদের অবদান আর আত্মত্যাগকে সম্মান জানাতে আমেরিকান কংগ্রেস ১৯৩৫ সালের আগস্ট মাসের প্রথম রবিবারকে বন্ধু দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেয়। তখন বেশকিছু দেশ বন্ধুত্ব দিবসের সংস্কৃতিকে গ্রহণ করে নেয়। এভাবেই বন্ধু দিবস পালনের পরিসর বাড়তে থাকে।