Print

সদর হাসপাতালের চিকিৎসক-কর্মচারীদের কর্মবিরতি স্থগিত

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৮.০৩.২০১৬

হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসককে লাঞ্ছিত ও ব্রাদারকে থানায় সোপর্দ করার প্রতিবাদে ডাকা কর্মসূচি আগামীকাল বুধবার পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার রাতে ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ মঙ্গলবার দুপুর ১০টা থেকে আবারও কর্মবিরতি শুরুর প্রস্তুতি নেন হাসপাতালটির চিকিৎসক ও কর্মচারীরা। খবর পেয়ে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শহীদুল ইসলামসহ স্থানীয় কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তি হাসপাতালে এসে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস ও সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার অনুরোধ জানান। তাঁদের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে আগামীকাল পর্যন্ত কর্মবিরতি স্থগিত করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হাসপাতালের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল রাত ৯টার দিকে হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যান অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মাফরোজা পারভীন। হাসপাতালে পরিচ্ছন্ন কোনো কক্ষ না থাকায় তাঁকে পোস্ট অপারেটিভ কক্ষে রাখার ব্যবস্থা করা হয়। কক্ষ গুছিয়ে দিতে বিলম্ব হওয়ায় জেলা জজ আদালতের নাজির রেজাউল করিম খোকন কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মঈনকে গালাগাল করেন। মাফরোজা পারভীনকে নির্ধারিত কক্ষে নেওয়ার পর তাঁর দেহরক্ষী পুলিশ কনস্টেবল নূরে আলম রনি কক্ষ দিতে বিলম্ব হওয়ার বিষয়টি নিয়ে উত্তেজিত হয়ে জরুরি বিভাগে কর্মরত ব্রাদার (নার্স) হাবিবুর রহমানকে জোরপূর্বক সদর মডেল থানায় নিয়ে যান এবং রাস্তায় তাঁকে মারধর করেন।

এর প্রতিবাদে গত রাতে দুই ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করেন হাসপাতালটির চিকিৎসক ও কর্মীরা। এ সময় দুর্ভোগে পড়েন রোগীরা। পরে সিভিল সার্জনের নির্দেশে কাজে ফিরে যান তাঁরা।

এদিকে, আজ দুপুরে চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল ত্যাগ করেছেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মাফরোজা পারভীন।